| 20 জুলাই 2024
Categories
অনুবাদ অনুবাদিত গল্প

অনুবাদ গল্প: একটি অদ্ভুত গল্প । ও হেনরির

আনুমানিক পঠনকাল: 2 মিনিট

লেখক পরিচিতি: উইলিয়াম সিডনি পাের্টার-আমেরিকান এই জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক তাঁর পাঠক ভক্তদের কাছে ও হেনরী নামেই সর্বাধিক পরিচিত। আমেরিকার নর্থ ক্যারােলিনা রাজ্যের গ্রিনসবরােতে ১৮৬২ খ্রিস্টাব্দের ১১ সেপ্টেম্বর এই জনপ্রিয় লেখকের জন্ম । প্রথাগত শিক্ষাব্যবস্থার সুযােগ লাভে বঞ্চিত ও হেনরীর জীবন ছিল বৈচিত্র্যময়। তাঁর জীবনের শেষ উক্তি ছিল, “আলােগুলাে জ্বেলে দাও, আমি অন্ধকারে আপন ঘরে যেতে চাই না।” তিনি অমর হয়ে থাকবেন তাঁর অনবদ্য ছােট সংকলন Cabbages and Kings, The Four Million, The Trimmed Lamp, Heart of the West, The Voice of the City, Roads of Destiny, Options, Strictly Business, Whirligigs, The Gentle Grafter usias জন্যে। ছ’মাস রােগ ভোগের পর ১৯১০ সালের ৫ জুন। মাত্র ৪৮ বছর বয়সে বহুমূত্র ও যকৃত পচনে মৃত্যু হয়। উইলিয়াম সিডনী পাের্টারের। ইরাবতীর পাঠকের জন্য ও হেনরির ‘A Strange Story’-র অনুবাদটি করেছেন তপন রায়চৌধুরী।


 

অস্টিনের উত্তরভাগে এক সৎ স্মদার্স পরিবার থাকত। পরিবারের সদস্য বলতে তিনজন – স্বামী, স্ত্রী এবং তাঁদের পাঁচ বছরের মেয়ে। একদিন রাতে খাওয়াদাওয়ার পর বাচ্চা মেয়েটির সাংঘাতিক পেটে ব্যথা শুরু হল। জন স্মদার্স সঙ্গে সঙ্গে ওষুধ আনতে বেরিয়ে গেলেন। কিন্তু দূর্ভাগ্যের বিষয়, তিনি আর ফিরলেন না। মেয়েটি কোনওভাবে ভালো হয়ে গেল। মিসেস স্মদার্স তাঁর স্বামীর এই আকস্মিক অন্তর্ধানে খুবই ভেঙে পড়লেন। তবে তিন মাস বাদে তিনি আবার বিয়ে করলেন এবং সান আন্তোনিও চলে গেলেন। কালক্রমে প্রকৃতির নিয়মে মেয়েটি একদিন যুবতী হয়ে উঠল। তারপর একদিন বিয়ে হল মেয়েটির এবং তারও একটি মেয়ে হল। সেই বাচ্চাটির পাঁচ বছর পূর্ণ হল একদিন। মেয়েটি সেই বাড়িতেই বসবাস করছিল, যেখান থেকে একদিন রাত্রিবেলা জন স্মদার্স ওষুধ আনতে বেরিয়ে গিয়েছিলেন, কিন্তু আর ফেরেননি।

 

একদিন রাতে সেই বিশেষ দিনে যেদিন জন স্মদার্স হারিয়ে গিয়েছিলেন, এটা একটা অদ্ভূত সমাপতন বলা যেতে পারে, এই বাচ্চা মেয়েটির তীব্র পেটে ব্যথা শুরু হল। বাচ্চাটির বাবা, জন স্মিথ যার নাম, তাঁর স্ত্রীকে বললেন,

“আমি বেরোচ্ছি ওর জন্য কিছু ওষুধ আনতে।“

সঙ্গে সঙ্গে তাঁর স্ত্রী বলে উঠলেন, “না, না, জন, একদম না। তুমি যাবে না প্লীজ। কারণ, তুমি গেলে তুমিও হারিয়ে যাবে চিরকালের জন্য।“

স্ত্রীর কথাতে জন স্মিথ আর বেরোলেন না এবং স্বামী-স্ত্রী দুজনেই তাঁদের ছোট্ট মেয়ে পান্সীর কাছে বসে রইলেন। ছোট্ট পান্সীর শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি ঘটল। ফলে জন স্মিথ আবার ওষুধ আনার জন্য বাইরে বেরোতে উদ্যত হলেন, কিন্তু যথারীতি তাঁর স্ত্রী তাঁকে যেতে দিলেন না। এমন সময় দরজা খুলে গেল এবং একজন সাদা চুলওয়ালা বৃদ্ধ মানুষ ঘরে প্রবেশ করলেন।

ছোট্ট পান্সী চেঁচিয়ে বলে উঠল, “এই যে, দাদু এসে গেছেন!”

অন্য সকলের চাইতে ছোট্ট মেয়েটি প্রথম চিনতে পারল তার দাদুকে। বৃদ্ধ মানুষটি তখন পকেট থেকে এক বোতল ওষুধ বার করলেন এবং তার থেকে ছোট্ট পান্সীকে এক চামচ খাইয়ে দিলেন। বাচ্চাটি সুস্থ হয়ে উঠল একটু পরেই।

জন স্মদার্স বলে উঠলেন, “একটু দেরি করে ফেললাম। আসলে, একটা গাড়ির জন্য অপেক্ষা করছিলাম রাস্তায়।“

  

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত