আগুন ভনিতা

 

 

শহরে আগুন জ্বলছে তমা

আমাদের শহরে মেঘ উপচে উঠে যাচ্ছে আগুনভনিতা কাহার?

 

তুমি চেনো তাকে?

প্রবৃদ্ধি সাজানো রাজপথে ঝাঁপ দিচ্ছে মানুষ

আলোকজ্জ্বল রাষ্ট্রমুখে পুড়ে যাচ্ছে শিশু

যেই তরুণ গল্পকার পেলো বাঁশির বাজনা

সংলাপে শেষের দিকে এসে, বাতাসে ছিটকে পড়েছে তার

কালিমাখা খুলিটিও অবশেষে-

 

শহরে আগুন জ্বলে, এ শহরে তৈমুর লং?

দিকে দিকে আগুনের বিভৎস মুখ, এঁকেছে কে সে, চেনো তাকে?

 

গোচরে মৃত্যুফড়িঙ ওড়ে, স‌ইতে পারি না, মনে হয়, মুকুন্দ দাসের কাছে ফিরি, আগুনের শিখাজ্বলা ঠোঁটে কথা বলছে উন্নয়ন, শহরে দানব ঢুকেছে? হাক ছাড়ে হালাকু খাঁ?

 

মনে হয় গালিবের শুয়ে থাকা মাটির নিকটে আগাই, এই শহর আগুন ছড়ানো দানবিকতার-এই শহরে ভিক্টোরিয়া পার্ক, চলো তমা, পায়ে পায়ে হেঁটে দুপুরে খাবার বাসন তেরেসাকে এগিয়ে দিব আজ। রামসাগরের গায়ে সেই প্রাচীন জলাধার ঘিরে দাঁড়িয়ে দুজনে এ শহর জ্বালাপোড়া দেখি, এ শহরে দম্ভ ও অন্ধ বিচারের নথি সব মিথ্যাকে নিয়ে পুড়ে যাক, পুড়ে ঝরে যাক বাতাসে!

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত