অ্যালোভেরার গুন

‘অ্যালোভেরা শুধু ত্বক ও চুলের কোমলতা ও উজ্জ্বলতা বাড়াতেই জনপ্রিয়’, এমনটাই এতোদিন প্রচলিত ছিল। কিন্তু ত্বকের পাশাপাশি স্বাস্থ্যের পক্ষেও এটি দারুণ দরকারি। শারীরিক নানা সমস্যা সমাধান করার জন্য অ্যালোভেরার রয়েছে অজানা বহু ক্ষমতা।

সবুজ রঙ্গের এই থক থকে পাতাটি কিন্তু আপনার ওজন কমাতে সাহায্য করে। অ্যালোভেরায় অ্যালোইন নামে প্রোটিন আছে। অ্যালোইন সরাসরি ফ্যাট কমায় না। কিন্তু দেহে জমে থাকা টক্সিন দূর করতে সাহায্য করে।

অতিরিক্ত অ্যালোইনের কারনে আবার ডায়রিয়া, পেটে যন্ত্রণা- তো বটেই কিডনী অচল হওয়ার মতো কঠিন রোগও হতে পারে। তাই খুব অল্প পরিমাণ অ্যালোভেরার রস খাওয়া উচিত। তাও সপ্তাহে ২/৩ দিনের বেশি নয়।সঙ্গে খানিকটা মধু মিশিয়ে নিতে হবে।৫০ মিলিলিটার অ্যালোভেরা রস এক গ্লাস পানিতে মিশিয়ে খাওয়া যেতে পারে।

ডায়েটের ক্ষেত্রেও অ্যালোভেরা রস উপকারি হতে পারে। কিন্তু পাশাপাশি অবশ্যই অন্যান্য পুষ্টিকর খাবারের উপরেও নজর রাখতে হবে। কেননা ওজন কমানোর জন্য স্বাস্থ্যকর ডায়েটের বিকল্প নেই।

ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ ডার্মাটোলজি অনুসারে, গর্ভবতী মহিলা এবং সদ্য মাদের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে এই রস। কারণ অ্যালোভেরা গ্যাস্ট্রোইনটেস্টিনাল সমস্যা তৈরি কওে ও ইউটেরাসের সংকোচন ঘটায়।

হজমের জন্য অ্যালোভেরার রস খুবই উপকারি। এটি পাকস্থলীর ক্ষত নিরাময় করে, হৃৎপিন্ডের স্বাস্থ্য বজায় রাখে ও ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণে রাখে।

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত