কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে আট বছর পর মুক্তি পেল বব ডিলানের অ্যালবাম

‘হাউ মেনি রোডস মাস্ট আ ম্যান ওয়াক ডাউন’, যখন প্রতিবাদের দরকার পড়েছে, তিনি কলম ধরেছেন হাতে, গিটার কোলে মাইক্রোফোনের সামনে সোচ্চারে বলেছেন, ‘কাম ইউ মাস্টারস অফ ওয়ার, ইউ দ্যাট বিল্ড দ্য বিগ গানস, ইউ দ্যাট বিল্ড দ্য় ডেথ প্লেনস…আই জাস্ট ওয়ান্ট ইউ টু নো, আই ক্যান সি থ্রু ইওর মাস্কস…’

বব ডিলান। প্রতিবাদের প্রতিভূ। আমেরিকা হোক বা ভিয়েতনাম, পৃথিবীর যে প্রান্তে অন্যায় দেখেছেন, গর্জে উঠছেন বব। তাঁর গানের সুরে সুর মিলিয়েছে আপামর বিশ্ব। তিনি বলেছেন, ‘আমার হাতে বন্দুক নেই, আমার হাতে কলম আছে।’ আবার সেই কলম আবার লিখতে সুর করল, সেই ঠোঁট আবার গাইতে শুরু করল। আমেরিকার কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে আট বছর পর আবার অ্যালবাম নিয়ে কামব্যাক করলেন ডিলান।

শুক্রবারই মুক্তি পাচ্ছে বব ডিলানের নতুন গানের অ্যালবাম, ‘রাফ অ্যান্ড রাউডি ওয়েস’। এর আগে ২০১২-তে ‘টেম্পেস্ট’ ছিল তাঁর শেষ অ্যালবাম। আবার স্বমহিমায় ফিরছেন তিনি। ডিলানের অ্যালবাম প্রকাশের খবর ইতোমধ্যে পৌঁছে গিয়েছে তাঁর অনুরাগীদের মধ্যে। ফলে প্রতিবাদের নতুন ভাষা পাওয়ার অপেক্ষায় তাঁরা।

জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর থেকেই আগুন জ্বলছে আমেরিকায়। হোয়াইট হাউসও সেই প্রতিবাদের গর্জনে রীতমতো কাঁপছে। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠছে গোটা বিশ্ব থেকে। এবার সেই প্রতিবাদেই যোগ হল বব ডিলান নামে মহীরুহের গান। ‘মার্ডার মোস্ট ফাউল’ই হোক বা ‘ফলস প্রোফেট’, ডিলানের প্রতিটা গানই যেন হয়ে উঠছে প্রতিবাদের মূর্ত ভাষা।

সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারও তাঁকে খুব একটা উচ্ছ্বসিত করতে পারেনি। ইতিহাসে প্রথম কোনও সঙ্গীতকারের ঝুলিতে নোবেল গেলেও তা তাঁর মনকে ছুঁতে পারেনি। কারণ তাঁর মন প্রাপ্তিতে নয়, প্রতিবাদে আনন্দ পায়। এবারও অন্যথা হল, বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে আবার জ্বলে উঠলেন গিটার হাতের সেই উসকোখুশকো চুলের লোকটা, বব ডিলান।

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত