| 15 এপ্রিল 2024
Categories
পাঠ প্রতিক্রিয়া সাহিত্য

পাখি যাপনের জার্নাল 

আনুমানিক পঠনকাল: < 1 মিনিট
পড়লাম অমিতাভর পাখি যাপনের জার্নাল। বোঝার ক্ষেত্রে আমার কিছু সীমাবদ্ধতা আছে। এক কথায় বলতে পারি মানসিক ভাবে একটা অন্য জগতে যাপন না করলে এ লেখা সম্ভব নয়। সে জগৎ টা আমার বিচারে হয়ত বা আধ্যাত্মিক। সেখানে বিচরণ মানে এক অনন্ত সুখের সন্ধান। আগাগোড়া এই বই এ অমিতাভ সেই সন্ধানই করে গেছে। রবীন্দ্রনাথের ভাষা ধার নিতে হয় সবসময়। “প্রভু তোমা লাগি আঁখি জাগে দেখা নাহি পাই পথ চাই সে ও মনে ভাল লাগে। এখানে সেই পাখির জন্যেই পথ চাওয়া। তাকে ছোঁয়া যায় না ,তাকে দেখা যায় না, সে অনন্ত গগন বিহারী। তবু সেই যাপন ভাল লাগে। মনে পড়ে যাচ্ছে সেলির স্কাই লার্কর কথা।Our sweetest songs are those that tell of saddest thought.কিছু কিছু লাইন মনের মধ্যে গেঁথে রয়েছে।”জানলার খড়খড়ি তুলে দেখি যে এক রাগিনী ধীর লয়ে হেঁটে যাচ্ছে, শূণ্য নদী তীরে ভালবাসার মগ্ন আঁধারে তুমি দেবী ক্রমশ সুর হয়ে ওঠো।আমার এক না দেখা প্রেমিকা ছিল যখন খুব মন খারাপ থাকত তখন তাকে স্মরণ করে গাইতাম তুমি সন্ধ্যের মেঘমালা তুমি আমার  সাধের সাধনা, মম শূণ্য গগনবিহারী আমি আপন মনের মাধুরী মিশায়ে তোমারে করেছি রচনা,তুমি আমারই তুমি আমারই মম অসীম গগন বিহারী। দীর্ঘদিনের অস্মরণীয় দুরান্তে থাকা সেই না দেখা প্রেমিকাকে আবার স্মরণ করলো পাখি যাপনের জার্নাল, ধন্যবাদ অমিতাভ। 
পাখি যাপনের জার্নাল
অমিতাভ দাস
অবগুণ্ঠন
দাম : ৬০ টাকা
কলকাতা বইমেলায় পাওয়া যাবে একমাত্র ২১৩ নং বিদুর পত্রিকার টেবিলে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত