খামখেয়ালি পাশবালিশ

 


কবি অরুণাভ রাহারায় ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠিত। তার কবিতায় ধরা থাকে সেই প্যাথোজ যার জন্য দুহাত পেতে বসে থাকি আমরা গদ্য লেখকরা। অন্তরের অন্তস্থল থেকে উঠে আসা কবিতাগুলি বেশ মর্মস্পর্শী। অরুণাভর শব্দচয়ন বা বাক্য প্রয়োগে বেশ দক্ষতা ফুটে ওঠে। “নোনতা দিনের চিঠি”, “শরীরে জং ধরা বাঘের ছাল”, “রুমালে বেঁধেছি কি যে! কাচ নাকি হীরে?” কিম্বা “একটু একটু করে রাত্রি ঝরে পড়ে” অথবা “ঠোঁটের কোলাজটুকু রেখে দিয়ে যাও” এমন সব বাক্য বেশ ভালো লাগে পাড়তে। শুধুমাত্র কবিতার টানে এক কবিতা থেকে অন্য কবিতায় হেঁটে চলেন তিনি। তার এই অবাধ বিচরণ, কবিতায় যাপন আরো মায়াময় হোক এই প্রার্থনা । তার কথাতেই বলি
“নদীর ঠিকানা খুঁজি…ভাষা খুঁজি রোজ
কবিতা ঝুলিতে রেখে বেঘোরে সহজ
পরবে ভাসিয়ে দিই পাখির বিরহ
ও মন এমন তুমি- সমস্ত সন্দেহ”  
খামখেয়ালি পাশবালিশ
ভাষালিপি
অরুণাভ রাহারায়
মূল্য ৬০টাকা  

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত