সংকেতলিপিরা | কার্লোস ভিতালে (আর্জেন্টিনা) | তর্জমা | জয়া চৌধুরী

Reading Time: 2 minutes

কার্লোস ভিতালে

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com,CÓDIGOS CARLOS VITALE (Argentina- Espana)/ Traducciion al bengali por Jaya Choudhury

কবি অনুবাদক কার্লোস ভিতালের জন্ম ১৯৫৩ সালে আর্জেন্টিনার বুয়েনোস আইরেসে। স্প্যানিশ ও ইতালীয় ভাষাতত্ত্বে ডিগ্রি অর্জন করেছেন। প্রকাশিত ৫ টি কাব্যগ্রন্থ  Códigos (1981), Noción de realidad (1987), Confabulaciones (1992) y Autorretratos (2001). ইত্যাদি।  এছাড়াও কাতালান ও ইতালীয় ভাষায় অসংখ্য বরেণ্য কবির কবিতা অনুবাদ করেছেন। কিছুনাম উল্লেখ করা গেল – Olga Orozco, Alejandra Pizarnik, Salvatore Quasimodo, Joan Brossa, Dino Campana, Giuseppe Ungaretti, Sergio Corazzini, Umberto Saba, Sandro Penna, এউখেনিও মোন্তালের কাব্যগ্রন্থের অনুবাদের জন্য Ángel Crespo পুরষ্কার পেয়েছেন। ইতালিয় ও কাতালান কবিদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য নামগুলি হল Rafael Cadenas, Antonio Gamoneda,  Giuseppe Ungaretti , ১৯৮৬ সালে Ultimo Novecento পুরষ্কার পেয়েছেন দিনো কাম্পানার কাব্যগ্রন্থ অনুবাদের জন্য।উম্বেরতো সাবার কাব্যগ্রন্থ অনুবাদ করার জন্য ২০০৪  সালে পেয়েছেন Val di Comino পুরষ্কার।১৯৮১ সাল থেকে তিনি স্পেনের বার্সেলোনায় বসবাস করেন।


  কোন সংকেতলিপি দিয়ে তোমার সূর্য বেছে নেবে ভাল বীজ সবচেয়ে স্বাস্থ্যকর দিনটি।   সমুদ্রের বাতাস দক্ষিণের আকাশ আমার বৃষ্টি।   অপমানের স্মৃতি চিরস্থায়ী রয়ে যায় অপমানিত মন বিক্রি করে না তার স্মৃতি।   পুরনো যন্ত্রণার মত শান্ত হয়ে যায় এবং অপেক্ষা করে।   মৃত্যু একধরনের স্বপ্ন যে আমায় ঘুম পাড়ায়।   না দেখতে চেয়েও আমি ভিতর দিকে চাই   অন্ধের চোখদুটি আমার দিকে চায়।   আমার কন্ঠের ভেতর নীরবতা তার নিজের স্বর দিয়ে কথা বলে।   বলি এবং পাল্টা বলে যাই।   কেবল নিশ্চিত করি স্বপ্ন এবং পরাজয়।   দূরের মৃত্যু।   অস্পষ্ট সঙ্গীত।   একটি মাত্র সরগম হবে যথেষ্ট।   আগুনের উপরে আগুন   আমার দিনগুলির উৎসবাগ্নি।  

আরো পড়ুন: গাব্রিয়েলা মিস্ত্রালের কবিতা । অনুবাদ : জয়া চৌধুরী


  ১০ আমি আশ্রয় চাইতাম আমি বাহু বাড়িয়ে দিতাম কোন অস্তিত্বহীনের দিকে আমি আশ্রয় চাইতাম আমি চিৎকার করতাম আর করেই যেতাম আমি চাইতাম।   ১১ আমার সীমিত হাতগুলি দিয়ে পায়ের চলার ছন্দে আমার সম্ভাব্য গন্তব্যে হেঁটে চলি ও বিরত হই।   আমার সীমিত          হাতগুলি দিয়ে                 আমার সীমিত হাত দিয়ে।       ১২ তেমন আশ্রয় ব্যতিরেকেই অন্ধের মত অগ্নিশিখার লাঠি হাতে খুঁজি সূর্যের পথ।   ১৩ একটি কন্ঠ আছে যে উন্মত্ততাকে আমন্ত্রণ জানায়।   ওর সঙ্গীত শুনে কখন খুলবে আমার দরজা?     ১৪ সমস্ত কারণগুলি তৈরী হয় স্থায়ী হয়ে থাকতে যেভাবে শূন্যের দিকে চায় মৃতদের চোখ সমস্ত কারণগুলি তৈরী হয় স্থায়ী হয়ে থাকতে যতদিন মৃত্যু না আসে।   ১৫ তুমি প্রশ্ন করতে আমাদের নিজস্ব কী ছিল যা আমাদের কারো কাছে ঋণী রাখে নি   আর আমি বলতাম যন্ত্রণা শুধুই যন্ত্রণা।   ১৬ স্মৃতিগুলি মনে পড়ে যা আমার চোখেরা কখনও চিনে নিতে পারে নি।   ঘুমন্ত পৃথিবীর বুকে স্মৃতির যত ক্রীড়া।   আমার স্মৃতি স্মরণ করে সে মিথ্যে বলে।   ১৭ অপরাধে পরিপূর্ণ হতে চলেছি আমি নরক আমাকে পৃথক করেছে আমার নিজের জীবন থেকে।   ১৮ এত নিস্তব্ধতা বোঝা যায় না কেন যে আমি গান গাই।   ১৯ কে বলে দেবে যাতে আমার শব্দগুচ্ছ শান্ত হতে থাকে আমার কন্ঠ যেগুলো বলে না সে তো নামহীন।                

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>