দাম্পত্য সম্পর্ক থাকুক যতনে

 

দাম্পত্য জীবনে স্বামী স্ত্রীর মাঝে সম্পর্কের টানাপোড়েন চলতেই থাকে। সম্পর্ক এই ভালো তো এই খারাপ। এই ভালো খারাপের মধ্যে জীবন কখনো উপভোগ্য হয়ে ওঠে আবার বিরক্তিও চলে আসে। এই সম্পর্ক যতক্ষণ ভালো থাকে ততক্ষণ মনে হয় দুনিয়াটা বেহেশত। কিন্তু সম্পর্ক খারাপ গেলেই ঘর বাহির সব নরক হয়ে ওঠে। তাই সম্পর্ক ভালো রাখার জন্য স্বামী স্ত্রী দুজনকেই কিছু বিষয় মেনে চলতে হবে।

সম্পর্কচ্ছেদের প্রধান কারণ জিজ্ঞেস করলে অধিকাংশজনই বলে থাকেন, ‘ও আর আগের মত নেই’। এটি একেবারেই ঠিক নয়। আসলে মানুষ কখনো বদলে যায় না, একে অপরের কিছু বিরক্তিকর অভ্যাস দেখতে দেখতে মনে মনে তার ওপর বিরূপ মনোভাবের সৃষ্টি হয়?

কিছু বিরক্তিকর অভ্যাস আছে যার কারণে অনেকেরই দাম্পত্য জীবনের সম্পর্ক নষ্ট হয়ে যায়। আর একবার সম্পর্ক নষ্ট হলে সেই সম্পর্ক পুনরায় আগের মত হয় না। সেইসব বিরক্তিকর অভ্যাসগুলোই আপনার সুন্দর সম্পর্কটিকে ভেঙে দেয়ার জন্য যথেষ্ট। সুতরাং এই অভ্যাসগুলো পরিহার করার চেষ্টা করুন।

বাড়াবাড়ি
আপনার স্বামী/স্ত্রী কি করছেন, কি খেলেন কিংবা কোথায় যাচ্ছেন তা জিজ্ঞেস করা অবশ্যই আপনার কর্তব্য। কিন্তু এই সামান্য কুশল বিনিময় বিরক্তির পর্যায়ে তখনই পরে যখন আপনি অযথাই তার ওপর খবরদারি করতে যান। এখানে যাবেন না, সেখানে কেন গেলেন, এর সাথে কথা বলবেন না, তার সাথে মিশবেন না এই ধরনের অতিরিক্ত অধিকার খাটিয়ে কথা বলা বিরক্তির কারণ হয়ে উঠতে পারে। বুঝতে হবে কোন আচরণটি আকর্ষণীয় এবং কোনটি বিরক্তিকর।

তুলনা করা
আপনার ভালোবাসার মানুষটি যা করেন এবং আপনার জন্য যা করছেন তার তারিফ করা শিখুন। অন্য কারো সাথে তুলনা করে তার মানসিকতাকে আঘাত করবেন না। অমুকের স্বামী/স্ত্রী তার জন্য অনেক কিছু করেছে তুমি কেন করো না বা করতে পারো না এই ধরনের তুলনামূলক কথা কখনোই নিজের স্বামী/স্ত্রীর সামনে বলা উচিৎ নয়। অন্য একজনের সাথে তুলনা করা সব চাইতে বড় আঘাত আপনার ভালোবাসার মানুষটির জন্য। এই ধরনের অভাস ত্যাগ করুন।

পেছনের কথা না বলা
অনেকের নিজের বর্তমান ভালোবাসার মানুষটির সামনে কথায় কথায় পুরনো দিনের কথা বলে থাকেন। এই অভ্যাসটি আপনার বর্তমান সম্পর্কের জন্য অনেক বেশি ক্ষতিকর। এতে করে আপনার ব্যাপারে ভাবনা আসতে পারে, আপনার মনে এখনো পুরনো দিনের বিষয়গুলো রয়ে গেছে। সুতরাং এই অভ্যাসটি দূর করুন।

সম্পর্কের কথা
অনেক স্বামী-স্ত্রীই এই ভুল কাজটি করে বসেন। বিশেষ করে যখন ঝগড়া হয়। আবার হাসি ঠাট্টার ছলে বলে ফেলেন পূর্বে ভালো ছেলে/মেয়ের সঙ্গে আমার সম্পর্ক ছিল, তাকে বিয়ে করলেই ভালো হতো ইত্যাদি। এই নিয়ে একে অপরকে খোঁচা দেয়ার এই প্রবণতাও দেখা যায়। এসব সম্পর্কচ্ছেদের বড় কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এসব বলা কখনোই উচিত নয়।

অতীত টানা
তুমি এই কাজটি করেছিলে, তুমি ওই কথাটা বলেছিলে এই ধরনের কথাবার্তা আপনাকে শুধুমাত্রই একজন বিরক্তিকর মানুষ হিসেবে উপস্থাপন করে। কথায় কথায় অতীত টেনে এনে সম্পর্ককে বিষাক্ত করে তুলবেন না। এই ধরনের অভ্যাস দূর করুন, সম্পর্ক ঠিক থাকবে।

কথা না শোনা
দাম্পত্য সম্পর্ক ঠিক রাখতে হলে স্বামী/স্ত্রী উভয়কে ভালো শ্রোতা হতে হয়। আপনি আপনার স্বামী/স্ত্রীর কথা শুনলেন না বা শুনতে চাইলেন না এতে করে তিনি ভাবতে পারেন আপনি তাকে এড়িয়ে চলছেন। এই ভাবনাটি সম্পর্কের জন্য ভালো নয়। একে অপরের কথা মনোযোগ দিয়ে শুনুন। এতে করে তিনি নিজেকে আপনার কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে করবেন। এবং সেই হিসেবে তিনিও আপনাকে গুরুত্ব দেবেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত