| 24 ফেব্রুয়ারি 2024
Categories
বিনোদন

‘গেন্দাফুল’ গানে ৭২ কোটি ভিউয়ার্স পেতে ৭২ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন বাদশা

আনুমানিক পঠনকাল: < 1 মিনিট

মাত্র কিছুদিন আগেই র‍্যাপার বাদশার গেন্দাফুল ঝড় তুলেছিল ইন্ডাস্ট্রিতে। জ্যাকলিনের সঙ্গে সেই ভিডিয়োতে প্রশংসার সঙ্গে উড়ে এসেছিল সমালোচনার ঝড়ও। বড় লোকের বিটি লো… গানটি জন্ম নিয়েছিল ৭০-এর দশকে বাংলার লোকশিল্পী রতন কাহারের কলমে। সেই সময় থেকেই যথেষ্ঠ জনপ্রিয়তা পেয়েছিল এই গান। গানের কথা সবার মনে গেঁথে থাকলেও, স্রষ্টাকে মনে রাখেননি অনেকেই। ঠিক যেমন শুরুতে তাঁর কৃতজ্ঞতা স্বীকারই করেননি বাদশা।

অবশেষে সোশ্যাল মিডিয়ায় একের পর এক সমালোচনা ও কটাক্ষের জেরে রতন কাহারের ঋণ স্বীকার করেন র‌্যাপার। ড্যামেজ কনট্রোলে সোশ্যাল মিডিয়ায় লম্বা পোস্টের পাশাপাশি বাংলার এই দরিদ্র শিল্পীকে অর্থ সাহায্যও করেছেন বাদশা। রাতারাতি পাঁচ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন রতন কাহারকে। শিল্পীর সঙ্গে ভিডিয়ো কলে কথা বলে পরবর্তীতে গান রেকর্ড করার কথাও দিয়েছিলেন। তবে বাদশা এবার মুম্বই পুলিশের জালে। মুম্বইয়ের ক্রাইম ব্রাঞ্চের রিপোর্ট অনুযায়ী ভুয়ো ৭২ কোটি ভিউয়ার্স পেতে ৭২ লক্ষ টাকা খরচ করেছেন বাদশা।



কিছুদিন আগেই মুম্বই পুলিশের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিলেন ভূমি ত্রিবেদী। কেউ বা কোনও চক্র তাঁর ভুয়ো প্রোফাইল সোশ্যাল মিডিয়ায় তৈরি করে বলিউডের কিছু মানুষের সঙ্গে যোগাযোগ করছেন, অনুষ্ঠান নিয়ে কথা হচ্ছে। ভূমির অভিযোগের পরই ক্রাইম ব্রাঞ্চ গ্রেফতার করে অভিযুক্তকে।

এই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেই মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ জানতে পারে, র‍্যাপার বাদশা তাঁর এই গেন্দাফুলের রেকর্ড ভাঙতে প্রচুর টাকা খরচ করেছিলেন। তিনি চেয়েছিলেন ইউটিউবে প্রথম ২৪ ঘন্টায় সবচেয়ে বেশি দর্শক যাতে এই ভিডিয়োটি দেখে এবং তিনি যেন বিশ্বরেকর্ড গড়তে পারেন।

পুলিশের তরফে নন্দকুমার ঠাকুর জানিয়েছেন, বাদশা এই অভিযোগ অস্বীকার করছেন। কিন্তু তিনি ইউটিউবকে ৭২ লক্ষ টাকা দিয়েছিলেন। অন্যদিকে বাদশার দাবি, আমি কোনও দিনই এসব অনৈতিক কাজের মধ্যে ছিলাম না। যা করেছি সব নিজের চেষ্টায় করেছি। অনুশীলন করেছি। আইনি পথে চলছি। তদন্তকারীদের সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। যাঁরা এই বিষয়টি নিয়ে আমার সঙ্গে থেকেছেন এবং উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তাঁদের আমি ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়ো ফলোয়ার বিক্রি করে এরকম ৬৮টি সংস্থাকে চিহ্নিত করেছে মুম্বই পুলিশ। ফরাসি বেশ রিছু সংস্থাও এই কাজের সঙ্গে যুক্ত। মুম্বই পুলিশের তরফে চিঠি পাঠানো হয়েছে তাঁদেরও।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত