ফুটবলের জানা অজানা তথ্য

১. বিশ্বের সবচাইতে জনপ্রিয় খেলা ফুটবল।আনুমানিক ৪৭৬ খ্রিস্ট্রপূর্বে চীনে এর প্রচলন শুরু হয়।

২. ফিফার সদস্য সংখ্যা জাতিসংঘের সদস্য সংখ্যার থেকে বেশী।পুরো বিশ্বে ১০০ কোটি মানুষ ফুটবল বিশ্বকাপ উপভোগ করে।

৩. ফুটবলের দ্রুততম গোলের রেকর্ড রিকার্ডো অলিভারের। মাত্র ২.৮ সেকন্ডে গোল করেন তিনি।

৪. দ্রুততম লাল কার্ডের রেকর্ডটি লি টডের দখলে। বাজে মন্তব্যের কারনে খেলা শুরুর ২ সেকেন্ডেই লাল কার্ড দেখেন তিনি।

৫. পুরো বিশ্বের একমাত্র ক্রীড়াবিদ হিসেবে ক্রিকেট বিশ্বকাপ এবং ফুটবল বিশ্বকাপ খেলেন সর্বকালের সেরা ওয়ানডে ব্যাটসম্যান স্যার ভিভি রিচার্ডস।১৯৭৪ বিশ্বকাপ কোয়ালিফাইংয়ে এন্টিগারের পক্ষে খেলেন তিনি।

৬. ১৮৭৮ সালের আগে খেলায় কোন রেফারি থাকতো না।দুইদলের দুজন প্রতিনিধি থাকতো।সে বছরই বাঁশি ব্যাবহার শুরু হয়।এর আগে ব্যবহার হতো চিৎকার,ইশারা,ছুটির ঘন্টা।

৭. ১৮৭১ সালের আগে খেলার কোন নির্ধারিত সময় ছিল না।আলোচনার মাধ্যমে তা করা হতো।কয়েকবার বিরতির নিয়ম ছিল….
তখন খেলোয়াড়রা স্নান করতো কাপড় বদলাতো বিশ্রাম নিতো।

৮. ১৮৮৯ সালে খেলা দেড় ঘন্টার করা হয়।

৯. নেট ছাড়া আবার গোলবার হয় নাকি! ১৮৯০ সালে নেট ছাড়াই খেলা হতো।

১০. ১৮৬২ সালের আগে হাত দিয়ে মারলেও গোল হতো।

১১. ১৮৭১ সালে নিয়ম করা হয় গোলরক্ষক হাত দিয়ে বল ধরতে পারবে। তখন গোলরক্ষকেরা হাতে বল ধরে মাঠের যেকোন স্থানে যেতে পারতো।

১২. রেফারির সিদ্ধান্ত পছন্দ না হলে ফুটবলার রা কত কিছুই না করেন। তাই বলে আত্নঘাতী গোল।
মাদাগাস্কারের এক ফুটবল দল আগের
ম্যাচের রেফারির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদের জন্য নিজেদের জালে গোল উৎসবে মেতে উঠেন।নির্দিষ্ট সময় শেষে স্কোর লাইন গিয়ে দাড়ায়
১৪৯-০!

১৩. একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে প্রতি ২০ টি ফুটবল ইঞ্জুরি একটি গোল উদযাপন করতে গিয়ে হয়।
একজন ফুটবলার গড়ে প্রতি ম্যাচে
৯.৬৫ কি. মি দৌড়ায়।

১৪. ব্রাজিলীয় রোনালদিনহো সবার মন কাড়েন মাত্র ১৩ বছর বয়সে।
যখন একটি ম্যাচে তার দল ২৩-০ গোলে বিশাল জয় পায়।
সেই ম্যাচে রোনালদিনহো কত গোল করেছিলো জানেন…? ২৩টি গোল মাত্র।

 

১৫. ফুটবল ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোল করেছেন চেকোশ্লোভাকিয়ার জোসেফ বিকান তিনি তার খেলোয়াড় জীবনে গোল করেছেন মাত্র ৮০৫টি। 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত