‘ঘুষ’ ফিরিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা

ড্রাগন নিয়ে গবেষণার জন্য পদক্ষেপ নিতে সরকারের কাছে চিঠি লিখেছিল ১১ বছরের মেয়ে ভিক্টোরিয়া। শুধু চিঠি নয়, চিঠির সঙ্গে ‘ঘুষ’ হিসেবে নিউজিল্যান্ডের মুদ্রায় ৫ ডলারও পাঠিয়েছিল সে। কিন্তু চিঠির সঙ্গে পাঠানো সেই ঘুষ ফিরিয়ে দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন!

প্রধানমন্ত্রী আরডার্নের দপ্তর আজ মঙ্গলবার এই তথ্য জানিয়েছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, চিঠির জবাব হিসেবে ভিক্টোরিয়াকে ফিরতি আরেকটি চিঠি লিখেছেন জেসিন্ডা আরডার্ন। সেই চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘পদার্থবিজ্ঞান ও ড্রাগন সম্পর্কে তোমার পরামর্শ শুনতে আমরা খুবই আগ্রহী। কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত, এই মুহূর্তে এই দুই বিষয়ের কোনোটি নিয়েই উচ্চতর গবেষণা চালানোর পরিকল্পনা নেই আমাদের।’

চিঠির সঙ্গে পাঠানো অর্থ ফেরত দেওয়ার কথা উল্লেখ করে আরডার্ন লিখেছেন, ‘আমি তোমার ঘুষের অর্থ ফিরিয়ে দিচ্ছি। একই সঙ্গে ড্রাগন, টেলিপ্যাথি ও টেলিকাইনেসিস সম্পর্কে তোমার আগ্রহের প্রতি শুভকামনা জানাচ্ছি।’

এই বয়সেই ড্রাগন ও টেলিপ্যাথির প্রতি ভিক্টোরিয়ার এমন উৎসাহের কারণ সম্পর্কে জানাতে গিয়ে তার বড় ভাই জানিয়েছেন, নেটফ্লিক্সের সাই-ফাই সিরিজ ‘স্ট্রেঞ্জার থিংস’ দেখে দেখেই এই বিষয়ে আগ্রহ জন্মেছে ভিক্টোরিয়ার।

এবারই প্রথম নয়, এর আগেও অল্প বয়সী মেয়ের চিঠির জবাব দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন। গত মার্চে ৮ বছর বয়সী এক মেয়ের চিঠির জবাব দিয়েছিলেন তিনি।

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত