| 21 এপ্রিল 2024
Categories
খবরিয়া

ভারতে বাড়ছে করোনা-আতঙ্ক

আনুমানিক পঠনকাল: 2 মিনিট
ভারতে ক্রমে বাড়ছে করোনা আতঙ্ক। আরও ৬ জনের শরীরে এই ভাইরাসের খোঁজ মিলল। এ বার আগরার একটি পরিবারের ৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাসের খোঁজ মিলল। তাঁরা দিল্লির সফদরগঞ্জ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।
 
এই নিয়ে মোট ১১ জনের দেহে করোনা পাওয়া গেল। আগে চিন ফেরত কেরলের তিন জন পড়ুয়া এবং গতকালই দিল্লি ও তেলঙ্গানার একজন করে বাসিন্দা করোনা পজিটিভ হয়েছেন।
 
 
সূত্রের খবর, আগরার ওই পরিবারের দু’ভাই সম্প্রতি ইতালি গিয়েছিলেন। বাড়ি ফেরার পর তাঁরা অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁদের থেকে সংক্রমণ ছড়ায় পরিবারের আরও চার সদস্যের মধ্যে। তাই এই ৬ জনকেই হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। ওই দুই ভাইকে হাসপাতালে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। এঁরা ছাড়া বাকি সদস্য যাঁদের মধ্যে এখনও সংক্রমণের কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি, তাঁদেরও নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে এবং নিজেদের ঘরে বন্দি রাখতে বলা হয়েছে।
 
 
আগরার প্রতিটা হোটেল, রেস্তোরাঁয় কোনও ইতালি, চিন এবং ইরানের পর্যটক এলেই দ্রুত মুখ্য মেডিক্যাল অফিসারের কাছে তা জানানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। যাতে তাঁদের শারীরিক পরীক্ষা করা যায়।
আরও পড়ুন: কর্তাদের ঘুষের ব্যবসা! বারুইপুর জেলে বন্দি-তাণ্ডব, দেখুন সেই ভিডিয়ো
 
এ দিকে সোমবার দিল্লি এবং তেলঙ্গানার যে দুই ব্যক্তির শরীরে এই ভাইরাসের খোঁজ মিলেছিল, তাঁরা দু’জনই আপাতত চিকিৎসাধীন। দিল্লির বাসিন্দা ওই ব্যক্তি সম্প্রতি ইতালি থেকে ফিরেছিলেন। গত সপ্তাহে তিনি ছেলের বন্ধুদের একটি পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন। তাঁর ছেলে নয়ডার একটি স্কুলের ছাত্র। তাঁর শরীরে করোনা ভাইরাসের খোঁজ পাওয়ার পরই সে দিন ওই পার্টিতে যোগ দেওয়া সমস্ত পড়ুয়া এবং অভিভাবকের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। নয়ডার ওই স্কুলটিও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আতঙ্কে বন্ধ রাখা হয়েছে ওই এলাকার অন্য একটি স্কুলও। এলাকার জেলা আধিকারিক বিএন সিংহ বলেছেন, ‘‘আক্রান্তের সঙ্গে ওই পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন এমন দুটো পরিবারকে নজরবন্দি করা হয়েছে। ওই স্কুলেও চিকিৎসকদের একটি দল গিয়েছে।’’ তবে এখনই এতটা আতঙ্কের কিছু নেই বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। করোনা ভাইরাসের জেরে যাতে অহেতুক মানুষ আতঙ্কগ্রস্ত না হয়ে পড়েন, তার জন্য টুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদীও। তিনি টুইটে সমস্ত মানুষকে শান্ত থাকতে বলেছেন এবং ভাইরাস রোধে প্রয়োজনীয় সতর্কতাটুকু নিতে বলেছেন।
কৃতজ্ঞতা: এবিপি

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত