| 23 এপ্রিল 2024
Categories
খবরিয়া

মন্দির এখন একশো শয্যার হাসপাতাল

আনুমানিক পঠনকাল: < 1 মিনিট

করোনা মোকাবিলায় লড়াই করছে সমগ্র বিশ্ব। এরই মাঝে নয়া নজির গড়ল ভারতের এক হনুমান মন্দির। রাতারাতি হনুমান মন্দিরকে বদলে ফেলা হল হাসপাতালে। পরিচিত হনুমান মন্দির এখন করোনা চিকিৎসার ১০০ শয্যার হাসপাতাল।

ঘটনাটি পশ্চিমের রাজ্য গুজরাতের। ওই রাজ্যের বোতাদ জেলার সরঙ্গপুরের কাস্ত ভজন হনুমান মন্দির এখন হাসপাতাল। রোগীদের জন্য ১০০টি শয্যা, ৫০টি ঘর এবং ১০টি আইসিইউ নিয়ে ওই মন্দির করোনা হাসপাতালে পরিণত হয়েছে মাত্র ২৪ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে।

মন্দির থেকে প্রথমে ধর্মশালা করা হয়েছিল ওই মন্দিরে। পড়ে সেখান থেকে হয়েছে সুবিশাল হাসপাতাল। যেখানে এখন রোগীদের সুবিধার্থে রাখা হয়েছে একগুচ্ছ ব্যবস্থা। ওপিডি ব্যবস্থার সঙ্গে রয়েছে চিকিৎসাকদের বসার আলাদা ঘর, নার্সিং স্টাফদের থাকার জায়গা, সেন্ট্রাল অক্সিজেন লাইন সাপ্লাই, পাঁচটি ভেন্টিলেটর এবং ৪৫টি আইসোলেশন রুম।

হাসপাতালে করোনা আক্রান্ত রোগী ছাড়াও অন্য রোগীদের চিকিৎসার ব্যবস্থাও করা হয়েছে। তাদের জন্য পৃথক জায়গাও রাখা হয়েছে। এলিভেটর, সিসিটিভিসহ রয়েছে একগুচ্ছ সুবিধা। মেডিক্যাল এবং প্যারা মেডিক্যাল মিলিয়ে ৫০ জন কর্মীকে রোগীদের সেবার জন্য নিয়োগ করা হয়েছে।

মন্দির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন যে এই ধরণের পরিষেবা মন্দিরের পক্ষ থেকে আগেও অনেক দেওয়া হয়েছে। কেবলমাত্র করোনা মোকাবিলার জন্যেই কোটি টাকার বেশি অর্থ গুজরাত রাজ্য সরকারের ত্রান তহবিলে দান করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত