| 23 এপ্রিল 2024
Categories
খবরিয়া

ভারতে এলেন ট্রাম্প

আনুমানিক পঠনকাল: 2 মিনিট

মোতেরায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও মোদী। বিশ্বের বৃহৎ এই স্টেডিয়াম উদ্বোধনের সঙ্গেই ‘নমস্তে ট্রাম্পে’ অংশ নেবেন প্রেসিডেন্ট। ভারত সফরের আগেই এই অনুষ্ঠানকে ঘিরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছিলেন। বিমান বন্দর থেকে স্টেডিয়াম পর্যন্ত ট্রাম্পকে স্বাগত জানাতে আয়োজন রয়েছে মেগা শো-য়ের। থাকবেন প্রায় কয়েক লক্ষ মানুষ। যা নিয়ে গত সপ্তাহেই বিস্ময় প্রকাশ করেছিলেন ট্রাম্প।

এদিন সকালবেলায় ভারতে পৌঁছায় ট্রাম্প। বিমান বন্দরে সস্ত্রীক ট্রাম্পকে স্বাগত জানান প্রধানমন্ত্রী মোদী। মোদীকে দেখে করমর্দনের পাশাপাশি আলিঙ্গন করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এরপরই স্বাগত দলের অন্যন্যদের সঙ্গে ট্রাম্পের পরিচয় করিয়ে দেন মোদী।

এই প্রথম ভারতের মাটিতে পা রাখলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এদিন বেলা ১১.৪০-এ আমেদাবাদের মাটি ছোঁয়ে প্রেসিডেন্টের এয়ার ফোর্স ওয়ান বিমান। বিমানবন্দর আশ্রম থেকেই সোজা সাবরমতী আশ্রমে যান ট্রাম্প। ছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সেখানেই চরকা কাটেন প্রেসিডেন্ট।

ভূ-রাজনৈতিক পরিষরে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভারত সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এছাড়া, এই প্রথম বিদেশে সপরিবারে এলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। স্ত্রী মেলিনার সঙ্গে রয়েছেন ট্রাম্পের কন্যা ইভাঙ্কা ও তাঁর স্বামী।

ভারত রওনা হওয়ার আগে ট্রাম্প বলেছিলেন, ‘অনেকদিন আগেই এই সফরের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। ভারতবাসীর সঙ্গে দেখা করতে মুখিয়ে আছি। লক্ষ লক্ষ লোক থাকবেন। প্রধানমন্ত্রী আমার বন্ধু। তিনিই বলেছেন, এত বড় আয়োজন আগে কখনও হয়নি।’ এদিন সকালে হিন্দিতে টুইট করে ভারতে আসা নিয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন প্রেসিডেন্ট।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ভারত সফর প্রসঙ্গে টুইট করেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সেখানেই তিনি জানিয়েছেন, ‘মার্কিন প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাতে অপেক্ষায় রয়েছে ভারত। সোমবার আমেদাবাদে ঐতিহাসিক একটি অনুষ্ঠানে তিনি আমাদের সঙ্গে থাকবেন। এটি অত্যন্ত সম্মানের বিষয়।’

‘নমস্তে ট্রাম্প ‘অনুষ্ঠান শেষে সপরিবারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যাবেন আগ্রায়। সেখানে পৃথিবীর সপ্তম আশ্চর্যের অন্যতম তাজমহল পরিদর্শন করবেন তিনি। এখানে তাঁর সঙ্গী হতে পারেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে তা এখনও নিশ্চিৎ করা হয়নি। সন্ধ্যা পৌনে ৬টা নাগাদ দিল্লি পাড়ি দেবেন প্রেসিডেন্ট।

প্রেসিডেন্টের এই সফরে বহু কাঙ্খিত ভারত-মার্কিন বাণিজ্য চুক্তি হচ্ছে না। অসন্তোষ প্রকাশ করে যা আগেই ঘোষণা করেছিলেন ট্রাম্প। জানিয়েছিলেন, ‘ব্যাণিজ্য চুক্তির বিষয়ে ভারত আমাদের সঙ্গে খুব একটা ভালো ব্যবহার করে না। তবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমি পছন্দ করি।’ তবে ভবিষ্যতে একটি গুরুত্বপূর্ণ চুক্তির বিষয়ে আশাবাদী তিনি। পরে অবশ্য জানিয়েছিলেন, তাঁর সফরকালে ভারত-মার্কিন ছোটখাটো বাণিজ্য চুক্তি হতে পারে। বাণিজ্য চুক্তি না হলেও প্রতিরক্ষা ও সন্ত্রাসবাদ দমনে ভারত মার্কিন চুক্তি সাক্ষর হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

বিদেশ সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রীংলা জানিয়েছেন, ‘২০১৭ সালে প্রথম সাক্ষাতেই প্রসিডেন্টকে ভারতে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। তখন এদেশে আসার আশ্বাস দিয়েছিলেন ট্রাম্প। এদিন সেই প্রতিশ্রুতিই বাস্তবায়িত হল।’ রবিবার আমেদাবাদে ট্রাম্প বরণ প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন তিনি। স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই প্রস্তুতির তত্ত্বাবধান করছেন বলেও জানিয়েছেন শ্রীংলা।

ট্রাম্প হলেন সপ্তম মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি ভারত সফর এলেন। প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে এই নিয়ে পঞ্চমবার সাক্ষাৎ হল প্রেসিডেন্টের। ট্রাম্পের এই সফর ভারত-মার্কিন সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবে বলে আশাবাদী সাউথ ব্লক।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের সুরক্ষায় জন্য আমেদাবাদের নিরাপত্তা কড়া করা হয়েছে। কমিশনার আশীষ ভাটিয়া জানিয়েছেন, ৩৩ ডিসিপি, ৩০০ ইন্সপেক্টর, ১০০০ সাব ইন্সপেক্টর, ১২০০ জাওয়ান, ২০০০ মহিলা পুলিশ, ১৫ কোম্পানি রাজ্য রিজার্ভ পুলিশ ও ৩ কোম্পানি ব়্যাপ মোতায়েন রয়েছে। এছাড়াও নিরাপত্তায় রয়েছে অন্যান্য বাহিনীও।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত