| 19 এপ্রিল 2024
Categories
খবরিয়া বিনোদন

‘আম্মা আমাকে নিতে এসেছেন!’

আনুমানিক পঠনকাল: < 1 মিনিট

প্রয়াত বলিউড অভিনেতা ইরফান খান। বুধবার মুম্বইয়ের কোকিলাবেন হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৫৪। বলিউডের প্রিয় অভিনেতার মৃত্যুতে শোকাহত তাঁর পরিবার, বন্ধুরা, ফ্যানেরা।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আটকাতে দেশজুড়ে লকডাউন চলছে। দেশের করোনাচিত্রে সবচেয়ে খারাপ অবস্থাও মুম্বইতে। তারই মাঝে প্রয়াণ অভিনেতা ইরফান খানের। সব কিছু স্বাভাবিক ছন্দে থাকলে অভিনেতার অন্তিমযাত্রায় এদিন হয়তো মুম্বইয়ের রাস্তায় ফ্যানেদের ঢল নামত। কিন্তু একেবারে নির্জনে শুধুমাত্র কাছের লোকেদের চোখের সামনে থেকেই চিরবিদায় নিলেন অভিনেতা।

মুম্বইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ইরফান খান। হঠাৎ করে তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় মঙ্গলবার তাঁকে আইসিইউতে রাখা হয়েছিল। বুধবার সকালে তাঁর মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসে। গত শনিবার মারা গিয়েছেন ইরফান খানের মা। মায়ের শেষকৃত্য হয়েছে জয়পুরের আদি বাড়িতে। ভিডিও কলের মাধ্যমে মায়ের শেষ দর্শন সেরেছিলেন বলিউডের বিশিষ্ট অভিনেতা।

বলিউড সূত্রে খবর, হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে ইরফানের শেষ কথা ছিল, ‘আম্মা আমাকে নিতে এসেছেন’। বুধবার দুপুর তিনটেয় তাঁর মরদেহ কবরস্থ করা হয় মুম্বইয়ের ভারসোভা কবরস্থানে। তাঁর পরিবার, ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা উপস্থিত ছিলেন শেষকৃত্যের সময়। দীর্ঘদিন ধরেই ক্যানসারের সঙ্গে লড়াই করছিলেন ইরফান।

অভিনেতার ঘনিষ্ঠমহলের দাবি, মায়ের মৃত্যুর শোক হয়তে তাতে আরও গতি দিয়েছিল। শোক সহ্য করতে না পারাটাও হয়তো তাঁকে আচমকাই আরও অসুস্থ করে দিয়েছিল। ইরফানের পরিবারের আশা, প্রিয় অভিনেতার রোগের সঙ্গে লড়াইয়ের সময় যেমন তাঁর ফ্যানেরা শক্ত ছিলেন, ইরফানের পাশে ছিলেন, মৃত্যুর পরেও যেন তেমনই শক্ত থাকেন সকলে।

 

 

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত