| 3 মার্চ 2024
Categories
খবরিয়া

সাধু হত্যাতে লকডাউন খুললে মহারাষ্ট্র অভিযানের হুঁশিয়ারি জুনা আখড়ার

আনুমানিক পঠনকাল: 2 মিনিট

দেশে করোনা মোকাবিলায় চিকিৎসক-পুলিশকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন হিন্দু সংগঠনের গৈরিকবেশধারী সন্ন্যাসীরাও জাত-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সেবা প্রদান করে চলেছেন অনবরত। এবার সেই গৈরিকবেশধারী সন্ন্যাসীদেরই পিটিয়ে নারকীয় ভাবে হত্যা করায় শিরোনামে মহারাষ্ট্র। গত ১৭ই এপ্রিল শ্রীপঞ্চ দশনামা জুনা আখড়ার দুই সন্ন্যাসী মহন্ত কল্পবৃক্ষ মহারাজ(৭০) ও মহন্ত সুশীল গিরি(৩৫) আখড়ার জনৈক সাধুর শেষকৃত্য সম্পাদনে যোগ দিতে সুরাট যাচ্ছিলেন। মহারাষ্ট্রের পালগড় জেলার গড়চিঞ্চল গ্রামের কিছু বাসিন্দা ইঁটপাথর ছুঁড়ে গাড়ি থামাতে বাধ্য করায় (মতান্তরে, কোনোভাবে গাড়ি খারাপ হওয়ায়) তাঁদের নামতে হয়। সূত্রের খবর, সেই সময় এলাকার প্রায় শ দুয়েক গ্রামবাসী লাঠি নিয়ে দুই সন্ন্যাসী ও তাঁদের গাড়ির ড্রাইভারের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এলোপাথাড়ি তিনজনকে পেটাতে থাকে। এ সম্পর্কিত কয়েকটি ভিডিও পরে স্যোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। সেখানে একটিতে দেখা যায় পুলিশের উপস্থিতিতেই ঘটনাটি ঘটে। বৃদ্ধ সন্ন্যাসী একজন পুলিশের হাত ধরে তাঁদের বাঁচানোর আকুতি করেন, কিন্তু পুলিশটি কোনো বাধা না দিয়ে নির্বিকার থাকেন!ঘটনাস্থলেই তিনজনের মৃত্যু হয়।

মিডিয়ায় প্রাথমিক ভাবে ঘটনাটি প্রচারিত হয়নি। কিন্তু পরে ভিডিও ভাইরাল হয়। সামাজিক মাধ্যমগুলিতে গোটা দেশ জুড়ে এই ঘৃণ্য অপরাধের প্রতিবাদে নিন্দার ঝড় বয়ে চলেছে। দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি তুলছে আপামর ভারতবাসী।
জুনা আখড়া কর্তৃপক্ষ এই ঘটনায় চরম ক্ষোভ উগরে দিয়েছে। তাদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ৩রা মে লক ডাউন উঠলে প্রায় ১ লক্ষ সাধু সন্ন্যাসীকে সংগঠিত করে মহারাষ্ট্র অভিযান করা হবে। দোষীদের চরম শাস্তির দাবিতে মহারাষ্ট্র সরকারের উপর চাপ তৈরি করা হবে। প্রয়োজনে মহারাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে চলবে ঘেরাও আন্দোলন। জুনা আখড়া কর্তৃপক্ষ দোষীদের দ্রুত ফাঁসির দাবি করেছে।

পাশাপাশি উরতরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ আজ ট্যুইট করে জানান গতকাল তিনি এই ঘটনায় দোষীদের শাস্তির দাবিতে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। উদ্ধব ঠাকরে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তাঁকে আশ্বস্ত করেছেন বলেও জানান যোগী।

ঘটনায় জড়িত ১১০ জনকে এখনো পর্যন্ত পুলিশ গ্রেফতার করেছে। গৈরিকধারী হিন্দু হৃদয়সম্রাট বালাসাহেব ঠাকরের রাজ্যে প্রকাশ্যে হিন্দু সন্ন্যাসীদের পিটিয়ে মারার এমন ঘটনা নিঃসন্দেহে আশ্চর্যজনক, যেখানে রাজ্যে ক্ষমতায় খোদ শিবসেনা এবং মুখ্যমন্ত্রীর গদিতে আসীন স্বয়ং বালাসাহেবের পুত্র! ঘটনাটি একদিকে যেমন দেশে ক্রমবর্ধমান সাম্প্রদায়িক কার্যকলাপের ভয়াল রূপটি উন্মোচিত করছে, তেমনই এমন পৈশাচিক ঘটনায় দেশের বুদ্ধিজীবী মহলের আশ্চর্যজনক নীরবতা পালনে তাদের ভন্ডামির মুখোশটিকেও নগ্ন ভাবে প্রকাশ করছে।

 

 

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত