| 16 এপ্রিল 2024
Categories
এই দিনে কবিতা সাহিত্য

একগুচ্ছ কবিতা

আনুমানিক পঠনকাল: 4 মিনিট

আজ ০৩ মে কবি, লেখক মোস্তফা মঈনের শুভ জন্মতিথি। ইরাবতী পরিবার তাঁকে জানায় শুভেচ্ছা ও নিরন্তর শুভকামনা।


 

 

সাদা ঘোড়ার দৌড়[br]

রাত্রির শিকড়ে আমার ঢুলুঢুলু ঘোর। ঘোর একটা আকর গ্রন্থ। তার চিরল পাতা[br]
পৃষ্ঠায় ছাই। জীবনের কয়লাখনিতে জমা হয় ছাইয়ের স্তুপ। স্তুপে শোয়ে থাকে[br]
চকচকে নক্ষত্র। আমার নক্ষত্র ধোয়া রাত একনিষ্ঠ হই আকর গ্রন্থে।[br]

প্রতিটি আকরিক নক্ষত্র আমার ছেলেবেলার কুড়ানো পাথর। পাথর দিয়ে আমি[br]
আকাশ ছোঁয়া ইমারত বানাই। আকাশচুম্বী ইমারতটা নৈশ আলোক।[br]

আমি আলোর চাতালে এসে দাঁড়াই। পান করি আলো। পাঠ করি জীবন।[br]
এই পানশালায় পানরত সবাই প্রতি মুহূর্তে হয়ে ওঠে এক একটি তেজী ঘোড়া।[br]
চারদিকে দৃপ্ত দাপট। ছড়িয়ে পড়ে আলোক হ্রেষা খুর। জন্ম নেয় অখণ্ড হীরক।[br]
কুণ্ডলী পাকায় হীরক জোছনা।[br]

আমার ঢুলুঢুলু ঘোর। ঘোর একটা সাদা ঘোড়ার দৌড়। দ্যোতিমান ঘোড়ার লেজে[br]
ঝুলে যায় আমার চোখ। ওর রেশমি লেজ ছড়িয়ে দেয় সবুজ শস্য ভরা ধান নদী[br]
দারুচিনি গ্রাম। মসলা ঘ্রাণ সচিত্র পাতা বৃক্ষ সবুজ ডাল। ডালের দিকে ওড়ে যায়[br]
পাখি বনঘুঘু।[br]

গ্রাম বালিকা হাসে। আলোর উৎস মুখে লাল শাড়ি বউ কলসী ডুবায়। আমরা পান[br]
করি আলোর মধু।[br]

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

[br]

[br]

 

গৌরী[br]

প্রতিদিন গৌরীর সাথে জীবন বদল করি। সমস্ত জঙ্গল চষে[br]
আমি যখন গৌরীর ডেরায়।[br]
তার কুলুঙ্গিতেই ঘোর নিদ্রা, নিশিযাপন।[br]

শুনেছি মানুষের প্রেমে শরীর থেকে চিলিক দিয়ে রক্ত উঠে মাথায়।[br]
খুন পর্যন্ত গড়ায় জেনেও[br]
মদ আর মরণের লোভে[br]
চাঙ্গা দেয়া কাঠের টুলবাক্সে বসে[br]
আমি গৌরীকেই প্রশ্ন করি, তুমি গৌরীকে চেনো ?[br]
সে বলে, তোমার মুখেই তো কতো শোনেছি তার নাম।[br]

আমি তখন তার কণ্ঠে ঠোঁট চেপে নিজের জীবন দিতে দিতে বলি,[br]
আমিই সেই গৌরাঙ্গ মোহন[br]
পূর্বজন্মে তুমি যার অগ্নিতে বিসর্জন ছিলে।[br]

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

[br]

[br]

স্বপ্নফল[br]

যেদিন জেনে গেছি, একটা স্বপ্নেরই পি-িফল এই আমি[br]
সবুজ পাতায় মোড়া ঝুলে রয়েছি গাছের শাখায়, বাতাসে দোলছি গাঢ় লাল[br]
পাখিরা পাকা ফলে ঠোঁট গলাচ্ছে, ঠোকরে ঠোকরে খাচ্ছে আমারই হৃৎপি- ফল।[br]

আমি সেদিনই জেনেছি, পাখিজন্মে যারা নেচে উঠেছিল আমারই মাতৃজঠরে[br]
আমি তাদেরই ঠোঁটে জীবনরস চুইয়ে পড়েছি অনন্তের ফোঁটা।[br]

জীবন-বৃক্ষ থেকে কারো স্বপ্নফল গলে গলে এই আমি, আমারই জন্ম করেছি সার্থক[br]
তাঁর চাওয়া, তাঁর তৃপ্ত অহং গলে গলে পাখিদের ঠোঁটে।[br]

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

[br]

[br]

সরোদ স্বপ্ন[br]

আমার শরীর বেয়ে খোয়া গেছে স্বপ্ন। জীবনের ফাঁক ফোকর ভেদ করে[br]
বাতাসের আলিঙ্গন পাই। স্পর্শ পাই পাতা ও পাথর।[br]
পাতায় দোয়েলের ডিম। উঁকি দেয় জীবন।[br]

আমি হাঁটি। আমার শরীর বেয়ে যেন পোনা মাছের ঝাঁক নামে।[br]
কতবার টেনে তুলে আনি সেই সরোদ স্বপ্ন। কলাপাতা মাছরাঙা[br]
বাঁশপাতা ঘুঙুর বালিকা ঘুঘু।[br]

বর্ষায় বৃষ্টিতে কৈ মাছের স্বপ্ন চড়চড় করে হাঁটে। পুকুরপাড় উলুখাগড়া[br]
ধানখেত বিলপাথারে দৌড়ায় স্বপ্নেরা। মাথায় ছাতা করে কোঁচ হাতে[br]
দৌড়ায় গৌরাঙ্গদা। তার চকচকা চোখ। ডিঙি নৌকায় দোল তোলে স্বপ্ন।[br]

আমি হাঁটি। চরাচরে ভ্রমণ করে চোখ। আকাশের চোখ মেলে ধরে[br]
গভীর নীল দেহের ক্ষুধিত তারা। স্বপ্নের ভেতর স্বপ্নান্তরিত হই আমি।[br]

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

[br]

[br]

আমার সামনে সমুদ্র[br]
জন্মেই মা-মরা ছেলে। দুধফল দেখিনি।[br]
স্তনবৃন্তের স্বাদ আমি জানি না।[br]
ঘন দুধের মতো[br]
সর পড়া কবিতা আমি পান করিনি।[br]
 
মাটি খেয়ে বড় হয়েছি।[br]
একটা কাকের সাথে দোস্তি হয়েছিলো কড়ইতলার মাঠে[br]
তার ডানায় ভর করে উড়াল শিখেছি।[br]
 
আমাকে উড়াল শিখিয়ে[br]
সে-ই একদিন শ্মশানে গিয়ে নিজের মুখাগ্নি করলো![br]
সেদিনই জেনেছি[br]
জীবন[br]
একটা সস্তা ভাগাড়।[br]
 
আমি তখন একা হয়ে খামচে ধরি নিজের ছায়া।[br]
আমার হাতে ওঠে আসে সোঁদা গন্ধময় একদলা[br]
কাদামাটি।[br]
এ মাটিতে আমি বানাতে চাইলাম[br]
আমার মায়ের মুখ।[br]
 
আহ্! মা[br]
আমার সামনে সমুদ্র[br]
পেছনে লকলক করছে জিহ্বা,[br]
কুণ্ডলী পাকিয়ে ধেয়ে আসছে[br]
আগুন![br]
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
[br]
[br]
এই জলে শরীর ভিজলে নারীরা গর্ভবতী হয়[br]

এবং এখানে বনজঙ্গল ঘিরে চাদরমোড়া দিয়ে আসে[br]
শীতের কুয়াশা[br]
ভোরবেলা সবুজের মাথায় করে[br]
গোল হয়ে আসে লাল সূর্য।[br]
.
জানালার ধারে পাখিরা যখন শিস লাগায়[br]
লাল মোরগ ডাকার আগেই[br]
ধানশিশু হাতে কিষাণেরা দলবেঁধে মাঠে নেমে যায়।[br]
.
সকালবেলা মাঠের মিঠে রোদে জীবন চষে চাষিরা[br]
কাদা কিংবা ঝুরঝুরা মাটির তলায়[br]
বুনে চলে নিজেদের জীবন[br]
ধান গম আলু শিম মটরশুঁটি ভরা ঘন সবুজ মাঠ।[br]
.
এখানে জীবনের খেলা চলছে[br]
পূর্বপুরুষের হাত ধরে এই খেলা আমরা পেয়েছি[br]
আমরা মাঠের লোক[br]
মাঠই আমাদের প্রার্থনার গান।[br]
.
আমরা দুহাত ভরে তুলে আনি সোনালি ফসল[br]
প্রাণের টানে দোল খেয়ে চলি ধানভরা নৌকায়[br]
ভাটিয়ালি সুরে সুরে জীবনের সাথে জীবন মিলাই।[br]
.
আমরা জীবন মিলাই নদীর সাথে[br]
আষাঢ়ের নতুন জল[br]
তার কাঁচা দেহে জোয়ার তোলে[br]
নিয়ে আসে সাদা সাদা রূপালি মাছ![br]
মাছেরা সংসার পাতে বিলেঝিলে[br]
কলমি কুমারীরা[br]
লতানো অঙ্গে ফোটায় ফুল।[br]
.
টলমলা জলে মাছেদের উদলা শরীর দেখে[br]
আমাদের গায়ে শিহরণ লাগে[br]
মৈথুনরত হাঁসেরা প্যাঁক প্যাঁক করে গলা তোলে[br]
আমরাও সাঁতার কাটতে ঝাঁপ দিই[br]
জলের বৈভবে।[br]
.
ভরা শ্রাবণ[br]
মাথায় নামছে পুরো আকাশের ঢল[br]
পায়ে সাদা রূপার মল পরে পাড়ার কিশোরীরা[br]
নামছে বৃষ্টি[br]
পূর্বাকাশে রামধনু হাসছে![br]
উঠোনে লাল কামিনীগন্ধা বৌদিরাও বসে নেই[br]
খুশিতে কাদামাটি আর শস্যদানা স্তনে মেখে[br]
নেচে গেয়ে চলেছে ঘুঙুর শাড়ি চুল[br]
ভাসছে[br]
নদী উতলা শ্রাবণ।[br]
.
এই জলে শরীর ভিজলে নারীরা গর্ভবতী হয়[br]
মাটি ফুঁড়ে জেগে ওঠে দুর্বাঘাস[br]
কলতলায় বৌদিদের বমি বমি লাগে[br]
শরীরে চিলিক দিয়ে ওঠে লাল শাড়ি পরা ডিমওলা[br]
বউ বউ পুঁটিমাছ![br]
.
আমার ডাকাডাকি শুনেই লাল বৌদি লজ্জা রাঙা হাসিতে-[br]
দাঁতে শাড়ির আঁচল কামড়ে খিড়কি খুলে[br]
পাকঘরে ঢুকে যায়[br]
বাড়িতে এখন উঠোনের সাথেই তুলে দিয়েছি[br]
লাউয়ের মাচা।[br]
.
আমরা গাছে গাছে সবুজের পাটায় হৃষ্টপুষ্ট[br]
তরতাজা ফল চাই[br]
গর্ভকামিনী গাছের তলপেটে কান পেতে শুনি[br]
নতুন বার্তা[br]
আমাদের মাথা ও চিবুকের অস্থি ঘিরে[br]
তরতর করে বেয়ে চলেছে লাউয়েরডগা![br]
.
আমাদের আনন্দের শেষ নেই।[br]
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত