বব মার্লের মুখোমুখি

 

অনিতা এম ওয়াটার্স, মেরি ওয়াশিংটন কলেজ থেকে বিএ পাশ করে পিএইচডি করেন কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। বর্তমানে তিনি ডেনিসন ইউনিভার্সিটিতে সমাজবিজ্ঞান / নৃতত্ত্ববিদ্যা এবং ব্ল্যাক স্টাডিজ প্রোগ্রামের অধ্যাপক। ) ১৯৮০ সনে তিনি বব মার্লের সাথে দেখা করে যে সাক্ষাৎকার নিয়েছিলেন, ইরাবতীর জন্য সেই দূর্লভ সাক্ষাৎকারের ভাব-ভাষান্তর করেছেন শৌনক দত্ত।

আজ সেই সাক্ষাৎকারের প্রথম কিস্তি।

 

১৯৮০ সনের ১৮ সেপ্টেম্বর আমি এমন একজনের মুখোমুখি হয়েছি, ভাবিনি সম্ভব হবে কোন দিন। সে তখন ম্যাডিসন চত্বরের বাগানে অনুষ্ঠান করার জন্য ন্যুয়র্কে ডেরা করেছে;আর এই বাগানে গান করার পরপরই দেশব্যাপী সফরে বেরিয়ে পড়ার কথা ছিল। তার সংকল্প ছিল সফরের শেষ অংকে নিউইয়র্ক ফেরত আসবে। কিন্তু, বিধি বাম! আচানক অসুস্থতার জন্য জীবনের শেষ মাস গুলো (সু)চিকিৎসার জন্য নিউইয়র্ক-ইউরোপ যাওয়া-আসা করতে করতেই ফুরিয়েছে। মানুষটি আর কেউ নয়, বব মার্লে!

আমি যদ্দুর জানি, মার্লে তাঁর জীবনে কোথাও কখনো এমন সাংবাদিক মার্কা সাক্ষাৎকার দেননি। আমার দুর্লভ সৌভাগ্য হয়েছিলো বব মার্লের সাক্ষাৎকার নেওয়ার।

ঐ সময় আমি কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে সমাজবিজ্ঞানের স্নাতক শিক্ষার্থী। র‍্যাগে গানবাজনা এবং রাজনীতির মধ্যকার সম্পর্ক নিয়ে গবেষণারত। গবেষণার জন্য বিভিন্ন র‍্যাগে সুরস্রষ্টার সাথে দেখা করে তাদের সাথে কথাবার্তা বলতে হত আমাকে, তাই বেশ কয়েকটি ক্যারিবিয়-মার্কিন সাপ্তাহিক/মাসিক পত্র-পত্রিকায় ফ্রিল্যান্স কাজ করতাম। পত্র-পত্রিকায় বিভিন্ন শিল্পীর অনেককটা পাব্লিসিটি রচনা লেখার পর একদিন ক্যারিবিয়ান পত্রিকার কর্তৃপক্ষ একজন আলোকচিত্রী সহ আমাকে মার্লের সাক্ষাৎকার গ্রহণের দায়িত্ব দিয়ে পাঠালো ।
দক্ষিণ সেন্ট্রাল পার্কের এসেক্স হোটেলে মার্লের কামরায় আমরা দেখা করি। তখন মার্লের সাথে ছিলেন সকার খেলোয়াড় স্কিল কোল এবং পাব্লিসিস্ট কোম্পানির একজন সদস্য ।

অনিতা ওয়াটার্স (অ ও): তোমার টুফ গংগ (Tuff Gong) নামধারী সংস্থাটি নিয়ত পরিবর্ধনশীল মানে সবসময় নতুন স্টুডিও/আর্টিস্ট যুক্ত হচ্ছে। টুফ গংগ নামের অর্থ কি?

বব মার্লে (ব ম): টুফ গংগ? একদিন হঠাৎই মাথায় এলো শব্দটা,মানে একদম চিন্তা ভাবনা ছাড়াই। তবে পরে ভেবে দেখেছি শব্দটা অর্থহীন নয়  কেননা,গংগ মানে গান,র‍্যাগে গান আর টুফ হইলো টাফ (Tough)!

অ ও: বেশ, তা এই সংস্থায় নতুন কি হচ্ছে কিংবা ঘটছে?

ব ম: নতুন যা ঘটছে তা হলো নতুন শিল্পীদের নতুন গান রেকর্ড করছে,যদিও আমি সবার সাথে পরিচিত না এই মূহুর্তে। টুফ গংগ এ আমি হলাম সেই মানুষ যে কিনা শিল্পীদের কন্ঠস্বরের পরীক্ষা নেয় আর রেকর্ডিংয়ের কাজ করে ।

অ ও: অডিশনের কাজ টা এখনো তুমি নিজেই দেখো?

ব ম: হ্যাঁ।

অ ও: বিপনণের দিকটাও কি তুমি দেখো?

ব ম: আমি না,আমরাই বিপনণের বিষয়গুলি দেখি এবং আমরা সৃষ্টি দেবার চেষ্টা করছি।

অ ও: ভিনাইল রেকর্ড মুদ্রণ কারখানা ?

ব ম: ঠিক তাই।

অ ও: লস এঞ্জেলসে টুফ গংগএর একটি বিপণী বিতান আছে,ঠিক?

ব ম: একদম, আমাদের এক ভাই সেটা চালায়।

অ ও: ব্রুকলিনে খোলার কোন সম্ভাবনা আছে ?

ব ম: কে জানে,আমি জানি না।

অ ও: টুফ গংগের সাথে ইজরাইলের বারো গোত্র-এর [টুয়েল্ভ ট্রাইবস অভ ইজরাইল] সংযোগটা কি ?

ব ম: টুয়েল্ভ ট্রাইব অরগানাইজেশন? স্কিল কোল জাহ রাস্তার নামে বিষয়টা খুলেমেলে বুঝিয়ে দাও তো তাকে।

স্কিল কোল: আচ্ছা, তুমি জানো (নিশ্চয়) জ্যাকবের বারো সন্তান ছিলো, তেরো (আর কি), বারো ছেলে আর এক মেয়ে। বারো ছেলে কারণ মানুষের শরীরে বারো রকমের স্বাভাবিক ক্রিয়া আছে। তাই, জ্যাকবের বারো ছেলে ইজরাইলের বারো গোত্রকে তথা বারো রকমের আচার-ব্যবহার প্রতিনিধিত্ব করে। আর, এইভাবেই মূলতঃ বারো গোত্রের আবির্ভাব ঘটে। একটি খুবই মজাদার সন্ধিক্ষণ আছে এখানে, বারো রকমের (আচার-ব্যবহারের) মানুষ হওয়া সত্ত্বেও তাদের মাঝে বর্ণ বা গায়ের চামড়ার রঙয়ের দ্বারা কোন ভেদ প্রথা চালু ছিল না। কারণ, আমরা বিভিন্ন গোত্রে জন্মাই কেননা আমরা বিভিন্ন মাসে জন্মাই বলে।

অ ও: তবে কি অরগানাইজেশনটি সবাইকে একত্র করে রাখে?

কোল: জানো তো- আমরা যেই বিষয়টা যেমন, তেমন-তেমন শিক্ষা দিয়ে থাকি, মানুষদেরকে বলতে চেষ্টা করি যে- আমাদের অবশ্যই আফ্রিকার দিকে ফিরে তাকাতে হবে, কেননা পশ্চিমের আকাশে জটিলতার ঘনঘটা দেখা যাচ্ছে। বাইবেলের কারণে, তুমি জানো, আমরা বাইবেল পাঠ করি, এটা আমাদের শিক্ষা দেয় যে_যখন সন্দেহাতীতভাবে কতিপয় ঘটনা ঘটতে থাকে, তখন জানি ভবিষ্যতেও এর পুনরাবৃত্তি হবে, এবং তার নিদানের জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।

চলবে…

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত