কাঠ চেরাইয়ের কাব্য


জানে করাত কাঠ চেরাইয়ের কষ্ট কতো
জানে লোহার পেরেক
কতোটা গভীর ক্ষত হলে জলের ধারায়
ঝরে কতো বারেক।


নদী ছিলো স্রোতস্বিনী, ছিলো জলের ঢেউ
বুকের ভেতর লুকোচুরি খেলছে যেনো কেউ।


কেউ জানেনা কেউ জানেনা জানে শুধুই পথ
পথের উপর তুমি আমি শুধু ভিন্ন ছিলো রথ।


একটা দোয়েল শিষ দিয়ে যায় উদ্যানের মাঝে
সকাল দুপুর খুঁজিই তারে পাইনি সন্ধ্যা সাঁঝে।


এমন করে তুই দুঃখ দিলি এমন করে সুখ
আরশীতে আর দেখবি না এই উদাসী মুখ।


আয়না মাঝে দেখলে তখন জড়িয়ে ধরে আছি
তোমায় ছাড়া দিন কাটাবো সুখের জীবন বাজি ।


না ভাঙা ঘুম পাড়ি দিতে চাই অচেনা এক পথে
কেউ যাবেনা একা যাবো নিজেই নিজের সাথে।


সকল দরজা বন্ধ করে যুবক বুকে মারে ছুরি
মন নিয়ে খেলে সময় আকালপক্ষে লুকোচুরি

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত