বদলে গেল ‘ফেয়ার এন্ড লাভলি’র নাম

সৌন্দর্য্যের ধারণায় ‘ফেয়ারনেস’ যে অপরিহার্য নয় বরং পরিহার্য তাতে স্বীকৃতি মিলেছে গত মাসে। বিশ্বব্যাপী বাণিজ্য করা ইউনিলিভার সংস্থা জানিয়েছে, “সৌন্দর্য্যকে আরও গভীরভাবে দেখার ক্ষেত্রে ব্র্যান্ডের নাম থেকে ফেয়ার শব্দটি বাদ দেওয়া হয়েছে। এমনকী হোয়াইট/হোয়াটনিং, লাইট/লাইটনিং-এর মতো শব্দও বাদ দেওয়া হবে সংস্থার সমস্ত বিপণন প্রয়াস থেকে।” বৃহস্পতিবার ইউনিলিভারের কর্মকর্তারা জানিয়েছে, তাদের এই প্রোডাক্ট ত্বককে উজ্জ্বল করার ক্রিম, তাই ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’ নাম বদলে ‘গ্লো এন্ড লাভলি,’করা হয়েছে।

লিপটন চা এবং ডোভ সাবান প্রস্তুতকারক জানিয়েছিল, হোয়াইট/হোয়াটনিং, লাইট/লাইটনিং-এর মতো শব্দ সৌন্দর্য্যকে একটিমাত্র দিকে তরান্বিত করে। যা উচিত নয়। এরপরই নাম বদলের সিদ্ধান্ত নেয় ইউনিলিভার।

ইউনিলিভার জানিয়েছে, পুরুষদের ত্বকের জন্য ক্রিমটিকে ‘গ্লো এবং হ্যান্ডসাম’ বলা হবে এবং নতুন ব্র্যান্ডের নামযুক্ত পণ্যগুলি আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই মার্কেটে চলে আসবে।

উল্লেখ্য, শুধুমাত্র ভারত থেকে এই একটি ব্র্যান্ড ব্যবসা করত ৫০ কোটি মার্কিন ডলার। এছাড়াও বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড এবং এশিয়ার অন্যান্য দেশেও জনপ্রিয় ছিল ইউনিলিভারের এই অতিপরিচিত ব্র্যান্ডটি। হিন্দুস্থান ইউনিলিভারও এর দ্বারা প্রভাবিত। মার্কিন মুলুকে জর্জ ফ্লয়েডের উপর চরম অমানবিক আক্রমণ ও করুণ পরিণতির পর সম্প্রতি ‘ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটার্স’ প্রতিবাদের ঢেউ উঠেছে দুনিয়া জুড়ে। অনলাইনে পিটিশন দায়ের করা হতে থাকে ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’ ব্র্যান্ডের নামের বিষয়ে জবাবদিহি চাওয়া হয়। যদিও ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি-র পাশপাশি লরিয়ল প্যারিস, শিশেইডো, পি অ্যান্ড জি মূলত ফেয়ারনেশ ক্রিমের ব্যবসাতেই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত