‘অসাধারণ’ মেসিকে রিয়াল বেটিসের সম্মান

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥

জাদুকরী পারফরমেন্সের কারণে শত্রু-মিত্র প্রায় সবারই নয়ন মণি লিওনেল মেসি। ময়দানী লড়াইয়ে তাঁর জাদু দেখে মোহবিষ্ট হতে বাধ্য তারা! এমন আরেকটি দৃষ্টান্ত স্থাপন হয়েছে স্প্যানিশ লা লীগার ম্যাচে।
রবিবার রাতে অ্যাওয়ে ম্যাচে রিয়াল বেটিসের আতিথ্য নিয়েছিল বার্সেলোনা। ম্যাচে মেসির চোখ ধাঁধানো হ্যাটট্রিকে ভর করে ৪-১ গোলের বড় জয় পেয়েছে কাতালানরা। ম্যাচে মেসির করা তিনটি গোলই অবিশ্বাস্য। এমন ভঙ্গিতে তিনি গোলগুলো করেছেন যা অন্য ফুটবলারদের কাছে স্বপ্নের মতো! মৌসুমের আর্জেন্টাইন তারকার এটা চতুর্থ ও ক্যারিয়ারের ৫১তম হ্যাটট্রিক। অসাধারণ পারফরমেন্সের দরুণ রিয়াল বেটিসের খেলোয়াড়েরা তো বটেই এমনকি তাদের দর্শকরাও সম্মান জানিয়েছেন পাঁচবারের ফিফা সেরা তারকাকে।
হ্যাটট্রিক হয়ে যাওয়ার পর গ্যালারিতে উঠে দাঁড়িয়ে তুমুল হর্ষধ্বনিতে মেসিকে সম্মান জানান রিয়াল বেটিস সমর্থকরা। ম্যাচ শেষে এজন্য তাদের প্রতি ভালবাসা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ৩১ বছর বয়সী মেসি। চলমান লীগে গোলদাতার তালিকায় সবার উপরে থাকা মেসির গোলসংখ্যা ২৯ টি। আর সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে মৌসুমে এ পর্যন্ত করেছেন ৩৯ গোল। বর্তমানে ২৮ ম্যাচে ২০ জয় ও দুই ড্রয়ে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় শীর্ষে আছে বার্সেলোনা। ১০ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। রিয়াল মাদ্রিদ ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে তিন নম্বরে।
বার্সেলোনা শিরোপা জয়ের পথে এই ম্যাচটিকে অন্যতম কঠিন চ্যালেঞ্জ হিসেবে ধরা হয়েছিল। এই ম্যাচটিসহ লীগে বাকি ১০টি ম্যাচের মধ্যে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে হোম ও পঞ্চম স্থানে থাকা আলাভেসের সাথে অ্যাওয়ে ম্যাচটিকেও কাতালান জায়ান্টদের জন্য চ্যালেঞ্জ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। তবে বেটিসকে হারিয়ে তাদের শুরুটা দুর্দান্ত হয়েছে। আগামী মাসে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে মোকাবেলা করার আগে এই ম্যাচগুলো থেকেই আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে নিতে চাইছে কোচ আর্নেস্টো ভালভার্ডের দল। ইতোমধ্যেই তাদের কোপা ডেল রে’র ফাইনাল নিশ্চিত হয়েছে। আগামী মে মাসে ফাইনালে ভ্যালেন্সিয়ার মোকাবেলা করবে বার্সেলোনা।
সেভিয়ার বেনিটো ভিয়ামারিন স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকেই আগ্রাসী মনোভাব নিয়ে খেলতে থাকে দু’দল। যে কারণে শুরু থেকেই খেলা উপভোগ্য হয়ে উঠে। এরই ধারাবাহিকতায় ম্যাচে বেটিসই প্রথম সুযোগ পায়। কিন্তু জোয়াকুইনের ভলি কোন কাজে আসেনি। কিছুক্ষন পরই ডি বক্সের ঠিক সামনে কানালেস বার্সেলোনা ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার আর্থার মেলোকে ফাউল করলে ফ্রিকিক পায় সফরকারীরা। সেট পিস থেকে দারুন দক্ষতায় মেসি ১৮ মিনিটে গোল করে বার্সাকে এগিয়ে দেন। বিরতির ঠিক আগে সুয়ারেজের দারুন পাসে ব্যবধান দ্বিগুন করেন মেসি। বিরতির পর আরও দুটি গোলের সুযোগ নষ্ট করেন সুয়ারেজ। তবে ৬৩ মিনিটে আর ভুল করেননি উরুগুয়ের তারকা। চারজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দুর্দান্ত এক গোলে বার্সিলোনার জয় প্রায় নিশ্চিত করেন সাবেক লিভারপুল তারকা।
ম্যাচের ৮২ মিনিটে লোরেন মোরোনের কার্লিং শটে সান্তনার এক গোল পায় বেটিস। তবে ৮৫ মিনিটে ইভান রাকিটিচের সহায়তায় হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মেসি। মজার বিষয়, বেটিস সমর্থকরা সেভিয়ার বেনিটো ভিয়ামারিন স্টেডিয়ামে প্রায় পুরোটা সময়ই মেসিকে উৎসাহিত করেন। হ্যাটট্রিক হওয়ার পর ও ম্যাচ শেষে তারা দাঁড়িয়ে মেসিকে সম্মান জানান। মেসিও প্রতিপক্ষ সমর্থকদের এই অভিনন্দনে দারুন উচ্ছাস প্রকাশ করেন। মসিকে সম্মান জানানোয় স্বাগতিক সমর্থকদের উপর সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন বেটিস কোচ কিকে সেটিয়েন। তিনি বলেন, আমাদের সমর্থকরা অসাধারণ একজন খেলোয়াড়ের প্রতি তাদের সম্মান দেখিয়েছে। ব্যাপারটা আমি সত্যি খুব পছন্দ করেছি। তার এই পারফরম্যান্সের স্বীকৃতি দেওয়াটা ন্যায্য ও সঠিক। আমাদের সমর্থকরা অসাধারণ আচরণ করেছে। আমি তাদের নিয়ে খুব গর্বিত। আমি দুর্দান্ত কিছু খেলোয়াড়কে অসাধারণ সব কাজ করতে দেখেছি। কিন্তু গত ১২ বছর ধরে মেসি যা যা করেছে তার সঙ্গে কোনো কিছুরই তুলনা হতে পারে না।
কৃতজ্ঞতা জানাতে ভুল করেন নি মেসি। বার্সিলোনা অধিনায়ক বলেন, সত্যি বলতে, একটা গোলের জন্য কখনও প্রতিপক্ষের সমর্থকরা আমাকে উঠে দাঁড়িয়ে সম্মান জানিয়েছে, এমনটা আমার মনে পড়ে না। রিয়াল বেটিসের সমর্থকদের আচরণের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। যখনই এই স্টেডিয়ামে আসি, আমরা খুব ভালো অভ্যর্থনা পাই। গুরুত্বপূর্ণ এই ম্যাচ জিততে পেরে আমি খুব সন্তুষ্ট ও খুশি।

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত