| 25 মে 2024
Categories
অনুবাদ অনুবাদিত কবিতা

ফুল, অশ্রু, প্রেম-৩১ নারীর কবিতা (পর্ব-২১) । মুম রহমান

আনুমানিক পঠনকাল: 2 মিনিট

ম্যারি এলিজাবেথ ফ্রাই [Mary Elizabeth Frye]

Mary Elizabeth Frye.irabotee.com

ম্যারি এলিজাবেথ ফ্রাই [Mary Elizabeth Frye] (১৯০৫-২০০৪) একজন গৃহবধু ছিলেন। মার্কিন এই নারী কবির স্মরণ শক্তি তুখোড় ছিলো। তিনি খুব পড়তেন। তার লেখালেখি সম্পর্কে তেমন কিছু জানা যায় না। তবে মজার কথা হলো, তার রচিত ‘আমার কবরে দাঁড়িয়ো না এবং কেঁদো না’ কবিতাটি একটা কাগজের ঠোঙ্গায় লেখা হয়েছিলো। ধারণা করা হয় যে, মার্গারেট শোয়ার্যকফ নামের এক ইহুদি তরুণী তার প্রতিবেশি ছিলো, মার্গারেটের পক্ষে সম্ভব ছিলো জার্মানীতে তার মৃত্যু পথযাত্রীকে মাকে দেখতে যাওয়া। এই ঘটনাটি নিয়েই তিনি বাজার থেকে আনা কাগজের ঠোঙায় কবিতাটি লিখেছিলেন। মাত্র ১২ লাইনের এই কবিতা কোথাও প্রকাশিত হয়নি। কিন্তু ফ্রাই নিজে এ কবিতাটির একাধিক অনুলিপি তৈরি করেন এবং ব্যক্তিগতভাবে অনেককে পাঠিয়েছেন। ১৯৯০-এর দশক নাগাদ এই বিখ্যাত কবিতার কবির নাম কেউ জানতো না। অথচ কবিতাটি ইতোমধ্যে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। পরবর্তীতে ফ্রাই এই কবিতার লেখক হিসাবে নিজেকে দাবী করেন। গবেষক এবিগেইল ফন বার্নার ১৯৯৮ সালে তার এক গবেষণার মাধ্যমে প্রমাণ করেন ম্যারি এলিজাবেথ ফ্রাই এই কবিতার রচয়িতা। গৃহবধু, ফুল বিক্রেতা ফ্রাই একটিমাত্র কবিতার জন্যই আজ বিশ্বখ্যাত।


আমার কবরে দাঁড়িও না এবং কেঁদো না

আমার কবরে দাঁড়িও না এবং কেঁদো না
আমি ওখানে নেই; আমি তো ঘুমাই না।
আমি তো সহস্র বাতাস যা বয়ে যায়,
আমি তো সহস্র হিরা তুষারে উজ্জ্বল,
আমি সেই সূর্য যা আছে পাকা শস্যে,
আমিই নম্র বৃষ্টি যা শরতে বর্ষে।
যখন তুমি জাগো সকালের নিস্তব্ধতায়
আমি সেই দ্রুত উড্ডিয়মান গতিময়তায়
একদম পাখির মতো ঘুরি উড়ে উড়ে।
আমি তো শান্ত তারার ঝিলিক রাত্রিরে।
দাঁড়িও না এবং কেঁদো না আমার কবরে;
আমি ওখানে নেই; আমি তো যাইনি মরে।

 

আরো পড়ুন: ফুল, অশ্রু, প্রেম-৩১ নারীর কবিতা (পর্ব-২০) 

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত