ওড়িশার মোদী


শপথ অনুষ্ঠানে পরা নতুন পাঞ্জাবিটাও তিনি কিনেছিলেন শপথের বিশেষ দিনের জন্যই। সরল সাদামাটা ওড়িশার বালেশ্বরের এই সাংসদ বিজেপির হয়ে হারিয়েছেন বিজু জনতা দলের প্রার্থীকে। তিনি প্রতাপ চন্দ্র সারঙ্গী।


সুট-প্যান্ট বা ধোপদুরস্ত পাঞ্জাবি… কিছুই নেই তাঁর। শপথ নিলেন তিনি ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প, পশুপালন, ডেয়ারি, মৎস্য দফতরের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে। শপথ অনুষ্ঠানে পরা নতুন পাঞ্জাবিটাও তিনি কিনেছিলেন শপথের বিশেষ দিনের জন্যই। সরল সাদামাটা ওড়িশার বালেশ্বরের এই সাংসদ বিজেপির হয়ে হারিয়েছেন বিজু জনতা দলের প্রার্থীকে। তিনি প্রতাপ চন্দ্র সারঙ্গী। নাহ, কোনও বিলাসবহুল প্রাসাদেও থাকেন না প্রতাপ। সামান্য এক চালার বাড়িই তাঁর বাসস্থান, জাঁকজমক নয়, প্রচারও করেছেন নিজের সাইকেলে চড়ে। রাজ্যের মানুষের কাছে তাঁর পরিচয় ‘ওড়িশার মোদী’ হিসেবেই। ছোটবেলা থেকেই আধ্যাত্মিক বিষয় নিয়ে চর্চা করতে-করতে সাধু হতে চেয়েছিলেন তিনি। যোগাযোগ করেন রামকৃষ্ণ মিশনের সঙ্গেও। তবে সাধু হওয়া আর হয়ে ওঠেনি প্রতাপের। বাবা মারা যাওয়ার পর মায়ের দেখাশোনা করার জন্য বাড়িতেই রয়ে যেতে হয় তাঁকে। প্রতাপ শুরু করেন সমাজের জন্য কাজ। ওড়িশার ময়ূরভঞ্জ ও বালেশ্বর জেলার আদিবাসী অধ্যুষিত জেলার গরিব ছেলেদের জন্য নিজের চেষ্টায় স্কুলও গড়েছেন।

.

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত