পোড়া শহরে বৃষ্টি আসুক

পোড়া শহরে বৃষ্টি আসুক

১.

আকাশে ধরেছে একরাশ কালো মেঘ
শহরটা তবু ভেজেনা বৃষ্টিতে
এই শহরে বিকৃত যৌনতা নাচে
ফ্ল্যাট, বাস, অফিস, ক্যান্টনমেন্ট, গলি আর ঘুপচিতে
নিউমার্কেটে ’পৌরুষ’ লালা ঝরে
লালসার জীভ কারখানা-ক্লাসরুমে

কোথায় পালাবে মেয়ে
কার পানে আছো চেয়ে

শহরটা আজো তোমার হয়নিকো
তুমিই তোমার স্বপ্ন শহর আঁকো

স্বপ্নতো নেই পালাবদলের ভোটে
দিন-রাত শুধু পালাক্রমেই….জোটে

মুক্তি মেলেনি সংসদে-আদালতে
পুরুষালী সনদ শুধেনিতো কোন দেনা
রুখে দাঁড়াও প্রচন্ড ঝড়ে-রোদে
এবারতো হোক স্বপ্ন-সুদিন বোনা ।।

২.

উষ্ণ হাওয়ায় পাঠিয়ে দিলাম
মেঘের ভেজা চোখ,
একলা কেন কাঁদবিরে তুই
মেঘটা সঙ্গী হোক।
চোখের পাতায় বৃষ্টি নাচুক
ইচ্ছে মতন সুরে,
কষ্টগুলো যাকরে উড়ে
খটখটে রোদ্দুরে ।
পুড়ুক তারা – যারা পোড়ায়
পোড়াতে চাইছে আরো,
তুই কেনরে একলা একা
কাঁপবি থরো থরো ।
আগল ভেঙে রাজপথেতে
আর একটিবার দাঁড়া ওরে,
তোর শ্লোগানেই বৃষ্টি নামুক
পোড়া পথের বুকটি জুড়ে ।।

উচ্চতর রাষ্ট্রবিজ্ঞান

বানেরজলে আর যায় না মানুষ ভেসে
রাষ্ট্রই খেলে তার রক্তে হোলি,
মেঘলাদিনে জনগণ হেসে-কেশে
পড়তে থাকুন উন্নয়ন পদাবলী!

বাঁশখালিতে কেমন দিলো বাঁশ
তবুও আছে লড়াইয়ের শিরদাঁড়া?
আপনারা বাপু আসলেও বেয়াড়া
রামপালে খাবেন আস্ত রাম ঠাশ!

কী দরকার জাহাজের খোঁজ নিয়ে
রাষ্ট্র- সে বিরাট কারবার,
যায়না বোঝা জনগণী মাথা দিয়ে-
তনু’ই মরেছে, হয়নি মার্ডার!!

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত