| 18 এপ্রিল 2024
Categories
এই দিনে কবিতা সাহিত্য

সৌরিশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের গুচ্ছকবিতা

আনুমানিক পঠনকাল: 3 মিনিট

১৪ মে কবি সৌরিশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মতিথি। ইরাবতী পরিবার কবি কে জানায় জন্মতিথির শুভেচ্ছা ও নিরন্তর শুভকামনা।


 

পরকীয়া

অনেকটা ভালো লাগা আর অনেক টা না ভালোলাগা যখন পাশাপাশি রান্না বাটি করে তখন ওই দুই পৃথিবী এক শূন্য গোলকে বাস করে । স্বপ্নের নীল রঙ কালো হয়ে ওঠে ধীরে ধীরে , জীবনের মানে একটা পাংশুটে মুখের থুথু হয়ে দেওয়ালে আঁকে মানচিত্র । তেতো মনের বিষাদ খুঁজে বেড়ায় এক মুঠো আবিরের ভালোবাসা রঙ বিষাক্ত পরকীয়ার কস্মেটিক রঙে ।
শুরু হয় নতুন উপন্যাস ।

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

প্রতীক্ষায়

শুধু শখ মেটানো এক সন্ধ্যা
নেশার গ্লাসে ডুব দেওয়া পূর্ণিমা কে
আঁকড়িয়ে ধরে স্বপ্নের জাল বোনে ।
অন্ধকার থেকে অন্ধকারে
হারিয়ে যাওয়া রাতের গুমোট ঘর
এক চুমুকে নিঃশ্বেষ করে গ্রহণ;
আমি তখনও বসে থাকি প্রতীক্ষায়
তোমার মাঝে আর একটা তুমি খুঁজে
একটা আমির ভালো থাকার প্রতীক্ষায়,
বসে থাকি ।।

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

 

মুক্তির জানালা
 
সভ্যতার সীমানা ছাড়িয়ে যেতে যেতে যেদিন হারিয়ে গিয়েছিলাম নিরুদ্দেশে,
শ্মশানের বুকে পড়ে থাকা আধপোড়া মাংসে লেখা হয়ে গেছিল আমার দিনলিপি,
আর সিগারেটের ধোঁয়ায় উড়তে থেকেছিল আমার আত্মার আকুতি।
সেদিন ঘোমটার আড়ালে বসন্তের রোদ সেঁকে নিতে নিতে খ্যাঁক খ্যাঁকে হাসিতে ফুটে উঠেছিল আমার মৃত্যুর ফরমান।
আমি ঘুম ঘুম চোখে শেষ বারের মত তোর হাতটা চেয়ে ছিলাম,
তুই বারোয়ারি রঙ ঘসে দিয়েছিলি আমার চোখে মুখে, গলায় জড়িয়ে দিয়েছিলি ফাঁসুড়ের মালা।
সময়ের সাথে আমার চোখ দু’টো যখন ঠেলে বেড়িয়ে আসছিল,
নিঃশ্বাস যখন আটকে যাচ্ছিল গলার কাছে অবিন্যস্ত ভাবে ছুটে চলেছিল আমার পা,
তখুনি ঠিক তখুনি দেখেছিলাম তোর হাত ছুঁয়ে আছে স্বপ্নের রামধনু আগামীর প্রতীক্ষায়।
সুখে থাক তুই সুখে থাক মুক্তির জানালায় ।
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
 
 
বলয়ের ওপারে
 
তখনো তোর মেঠো হাত ছুঁয়ে রয়েছে জীবনের শেষ অবলম্বন
তালু থেকে মুছে যাওয়া ভাগ্যরেখা চুয়ে নেমে আসছে রক্তস্রোত
অসার শরীরে ঘিরে ধরছে বিদেশি লার্ভা
অস্ফুট ঠোঁটে ধ্বনিত হচ্ছে অন্তিম শব্দ
সে শব্দের বুকে গর্জে উঠছে কামান
লুন্ঠিত হচ্ছে ছিন্ন ভিন্ন মাথা
সে মাথার শিরা উপশিরায় ভেসে চলেছে সে শব্দ
ভাসতে ভাসতে মিশে যাচ্ছে বারুদ মেশা হাওয়ায়
সে হাওয়ার ডানায় ছড়িয়ে পরছে এদেশ থেকে ওদেশ
সাগর পেরিয়ে মরুভূমি পেরিয়ে এ বলয়ের কোণায় কোণায়
নিঃশ্বাসে নিঃশ্বাসে জমে উঠছে জেহাদি আওয়াজ
এখন আর এক নয় দুই নয় হাজার হাজার মুখ থেকে নির্গত হচ্ছে
একটাই শব্দ
একটাই ভাষা ” বন্দেমাতারাম ” …
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
 
 
সতী
 
এই মেয়ে;
তুই মিছেই আজ স্বপ্ন দেখিস
দু’হাত ভরা শাঁখা পলায়
মিথ্যে তুই দু’চোখ আঁকিস
আয়নাডোবা জীবন ভেলায়
অন্ধকার আজ ঘনিয়ে আসে
শহরজুড়ে তোর আকাশে
সিথির সিঁদুর, ঘোমটা, টিপ
মিথ্যে সব পুড়েই গেছে
পুতুল খেলার কয়েক বছর
বিষাদ ঘরে বিষণ্ণতায়
ধূসর মেঘে হারিয়ে গেছে
সতীর সাজে চিতায় ওঠায়
সর্বনাশের বাদ্দি বাজে
এধার ওধার সবখানেতে
ওঠনা মেয়ে দাড়া রুখে
পুতুল ফেলে অস্ত্র হাতে
দু’চোখ মেলে দেখ না মেয়ে
কাপুরুষের ভিড় জমেছে অট্ট হাঁসির ডঙ্কা বাজে
তোর ভেতরেই ধরিত্রী মা
হাজার মায়ের সংজ্ঞা খোঁজে
যাস না মেয়ে তুই যাস না হেরে
গহীন রাত আজ অস্তাচলে
তোর শরীরের রক্তধারা
বিদ্রোহিণীর কথা বলে
যাস না মেয়ে তুই যাস না হেরে
যাস না মেয়ে তুই যাস না হেরে
যাস না মেয়ে তুই যাস না হেরে ।।
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত