তারকাদের বন্ধু

‘ফ্রেন্ডশিপ ডে’ যে বন্ধুত্বের নামে উৎসর্গ করেই পালন করা হয় সে কথা বলার অপেক্ষা রাখে না। অনেকের জীবনেই তাঁদের বন্ধুদের ভূমিকা অনেক। আবার অনেকেই আছেন এক জন ভালো বন্ধু খুঁজে পেতে সারা জীবন কাটিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু সেই খোঁজে সফল হতে পারেননি। তাঁদের অবশ্য অন্যের বন্ধুত্ব দেখে আর তার গল্প শুনেই সাধ মেটাতে হয়। এমন পাওয়া না পাওয়ার গল্প খালি যে আম জনতার জীবনে আছে তা নয়। আছে তারকাদের জীবনেও। বলিউডের তেমন কয়েকজন তারকার গল্প বলা যাক, যাঁদের বন্ধুত্ব অটুট।

শাহরুখ খান ও করন জোহর

ইন্ডাস্ট্রির একটি কিংবদন্তী বন্ধুত্ব শাহরুখ ও করনের। সব ভালোমন্দে একে অপরের সঙ্গে ছিলেন। কোনো দিনই সঙ্গ ছাড়েননি। করন শাহরুখের জন্য কেবল এক জন পরিচালকই নন, এক জন গুরু, পরামর্শদাতা এবং খুব ভালো বন্ধুও।

করিনা কাপুর ও অমৃতা অরোরা

যোগা ক্লাস থেকে বিদেশ ভ্রমণ, সব কিছুতেই এক সঙ্গে দেখা যায় করিনা কাপুর ও অমৃতা অরোরাকে। ফ্যান ফলোয়ার্সরাও তাঁদের এক সঙ্গে দেখতে পছন্দ করেন। হবে নাই বা কেন? তাঁরা তো দু’ জন দারুণ ভালো বন্ধু। এই বন্ধুত্বের জাহাজে তাঁরা সওয়ার করছেন অনেক বছর হয়ে গেল।

রণবীর সিং ও অর্জুন কাপুর

‘কুল ফ্রেন্ডশিপ’ বলতে যা বোঝায় তা হল এঁদের মধ্যে। রণবীর ও অর্জুন এক সঙ্গে হলেই আনন্দের রোল পড়ে যায়। তার প্রমাণ পাওয়া যায় ‘কফি উইথ করন’ টক শোয়ের পর্বটি দেখলেই। ‘গুন্ডে’ ছবিতে অভিনয় থেকে তাঁদের মধ্যে এই বন্ধুত্বের বন্ধন শুরু হয়েছে।

রণবীর কাপুর ও অয়ন মুখার্জি

অয়ন-রণবীরের বন্ধুত্বও বেশ মজবুত। আলিয়া ও রণবীরের ভালোবাসার সময় থেকে রণবীরের জীবনে জায়গা করে নিয়েছে অয়ন। আজও তা অটুট।

তাবু ও অজয় দেবগন

এই বন্ধুত্বের কথা কে না জানে। অজয় দেবগনের পাশে সব সময় রয়েছেন তাবু। বন্ধুত্ব এই পর্যায়ে দৃঢ় হয়েছে এখন তা এক রকম ভাই বোনের মতোই হয়ে গিয়েছে। তাঁরা এক সঙ্গে বেশ কিছু ছবিও করেছেন।

আলিয়া ভাট ও বরুণ ধাওয়ান

দু’ জনেরই প্রথম ছবিটা এক সঙ্গে করেছিলেন। তার পর থেকে বেশ কয়েকটি ছবি এক সঙ্গে কাজ করেছেন। এখন ছবির রসায়ণ বাস্তব জীবনেও। সেই থেকে এক সঙ্গে রয়েছেন আলিয়া ভাট ও বরুণ ধওয়ান।

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত