চাকরির ইন্টারভিউয়ে যে তিনটি গল্প রাখতে পারেন আপনি

সুন্দর সিভি আপনার চাকরির নিশ্চয়তা দেয় না, তবে সুন্দর গল্প দিতে পারে। চাকরিদাতারা আপনার মুখ থেকে এমন গল্প শুনতে চায়, যা আপনার লিখিত বায়োডাটাকে সমর্থন করে। আর আপনার যোগ্যতা, সক্ষমতা বলার সময় প্রাসঙ্গিক অতীত অভিজ্ঞতা টেনে আনতে হবে।

আপনার অতীত অভিজ্ঞতার গল্প চাকরিদাতার কাছে আপনার ভালো বা মন্দ ইম্প্রেশন দিতে পারে। আপনি কীভাবে বলছেন, কী গল্প করছেন সেটা গুরুত্বপূর্ণ। ইন্টারভিউতে গল্প করতে পারেন এমন তিনটি প্রসঙ্গ হচ্ছে:

উদ্যোগী মনোভাব:

সকল চাকরিদাতারাই চায় আপনার মধ্যে উদ্যোগ নেওয়ার যোগ্যতা আছে। আপনাকে শুধু ঠেলে কাজ করাতে হয় না। আপনি প্রয়োজনমত নিজে উদ্যোগ নিয়ে কাজ করতে পারেন। অতীতে এমন কিছু উদ্যোগ নিয়েছেন তার কথা বলুন। আপনার পুরানো কর্মস্থলে আপনার নেওয়া এমন উদ্যোগগুলোর কথা স্মরণ করুন যার ফলে আপনি কোন একটা জটিল কাজে সফল হয়েছিলেন।

ইন্টারভিউতে স্বাভাবিক থাকার জন্য নিজে আয়নায় রিহার্সাল করে যেতে পারেন। গল্প বলার সময় স্বাভাবিক ও স্বতঃস্ফূর্ত থাকার চেষ্টা করতে হবে। যদি আপনার গল্প বা গল্পটি বলার ভঙ্গি কৃত্রিম মনে হয় তাহলে আমও যাবে, ছালাও যাবে!

দলভুক্ত হয়ে কাজ করার মানসিকতা:

কোনো ব্যক্তিই তার ঝুড়িতে পঁচা আপেল রাখতে চায় না। কারণ একটা পঁচা আপেল অন্যগুলোকে নষ্ট করে দেবে। খারাপকর্মী কোনো একটা প্রতিষ্ঠানের জন্য এমন পঁচা আপেল। আপনি যতই অন্তঃমুখী হননা কেন কোনো প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে গেলে খানিকটা দলে কাজ করার মানসিকতা রাখতে হবেই। বহিঃমুখীরা এক্ষেত্রে একটু বেশি সুবিধা পেয়ে এগিয়ে থাকে।

একা একা অনেক কাজ করে দেখিয়ে দিতে পারেন এমন মনোভাব পছন্দ করে না চাকরিদাতারা। বরং অনেককে নিয়ে কিছু করেছেন সেখানে সম্ভাবনা দেখে। এজন্য আপনার সাবেক কর্মস্থলে কোনো দলের দলনেতা বা দলের সদস্য হয়ে কোন কোন গুরুত্বপূর্ণ কাজ করেছেন তার গল্প করুন। দলভুক্ত হয়ে কাজ করার যোগ্যতা একটি গুরুত্বপূর্ণ যোগ্যতা হিসেবে দেখে থাকে চাকরিদাতারা।

সততাই সর্বোৎকৃষ্ট পন্থা:

আপনার যত যোগ্যতাই থাকুক কিন্তু আপনি যদি সৎ না হন তাহলে আপনার উপর বিশ্বাস স্থাপন করতে পারবে না কোনো ব্যক্তিই, আর চাকরিদাতারা তো অবশ্যই। আপনার কাছে যদি কোনো প্রতিষ্ঠান নিরাপদ বোধ না করে তাহলে কেন আপনাকে নিয়োগ দেবে?

অন্য অনেক যোগ্যতাতে ঘাটতি থাকলেও স্রেফ সততার গুণে অনেক কর্মী ভালো পদে চলে গিয়েছেন বা কোন প্রতিষ্ঠানে দীর্ঘদিন কাজ করতে পেরেছেন। পুরনো কর্মস্থলগুলোতে আপনার সততার প্রমাণ দেয় এমন কিছু শক্তিশালী গল্পের প্রসঙ্গ নিয়ে আসেন।

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত