রহস্য খুলবে ‘দ্যা তাসখন্দ ফাইলস’


৫৩ বছর আগের রহস্যই উঠে আসতে চলেছে মিঠুন চক্রবর্তী অভিনীত ‘দ্যা তাসখন্দ ফাইলস’ ছবিতে।


১৯৬৫ সালে ইন্দো-পাক যুদ্ধ জয়ের নায়ক বলে মানা হয় লাল বাহাদূর শাস্ত্রীকেই। ১৯৬৬ সালে ১০ জানুয়ারি তাসখন্দে শেষ হয় ইন্দো-পাক যুদ্ধ। আর এর পরদিনই ১১ জানুয়ারি সেখানেই মৃত অবস্থায় পাওয়া ভারতের দ্বিতীয় প্রধানমন্ত্রী লাল বাহাদূর শাস্ত্রীকে। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তাঁর মৃত্যু হয়েছে বলে ঘোষণা করা হলেও অনেকেই শাস্ত্রীর মৃত্যুতে রহস্যের গন্ধ পান। বিভিন্ন কারণে এই মৃত্যুকে পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড বলেও মনে করেন অনেকেই। এবার সেই রহস্যই উঠে আসতে চলেছে মিঠুন চক্রবর্তী অভিনীত ‘দ্যা তাসখন্দ ফাইলস’ ছবিতে।

ঠিক কী কারণে শাস্ত্রীকে খুন করা হয়েছে তা নিয়ে মত পার্থক্য রয়েছে। সেবিষয়টিই উঠে এল ‘দ্য়া তাসখন্দ ফাইলস’-এর ট্রেলারে। ছবির ট্রেলারে দেখা যায়, নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর বেঁচে থাকার কথা জানতে পারেন লাল বাহাদূর শাস্ত্রী। সেকারণেই কি খুন? প্রশ্ন তোলা হয়েছে ছবির ট্রেলরে। দেখুন মিঠুন চক্রবর্তী অভিনীত এই ছবির ট্রেলারে কী উঠে এসেছে…

বহুদিন বিনোদন জগত থেকে দূরে রয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী। বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালত এই ছবি ‘দ্যা তাসখন্দ ফাইলস’ দিয়ে অভিনেতার বড় পর্দায় ফেরাটাও সিনেমাপ্রেমীদের কাছে একটা বড় চমক তো বটেই। এই ছবিতে মিঠুন চক্রবর্তী ছাড়াও রয়েছেন নাসিরুদ্দিন শাহ, শ্বেতা বসু প্রসাদ, পঙ্কজ ত্রিপাঠি, বিনয় পাঠক, মন্দিরা বেদী মতো অভিনেতা অভিনেত্রীদের। ছবিতে মিঠুন চক্রবর্তীর চরিত্রের নাম শ্যমসুন্দর ত্রিপাঠী।

সূত্রঃ জি নিউজ

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত