ট্র্যাভেল টিপস

Reading Time: 2 minutes

বেড়াতে যেতে আমরা সবাই ভালবাসি। কিন্তু বেড়াতে যাওয়ার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কিন্তু প্যাকিং। প্যাকিং এমন ভাবে করতে হবে যাতে লাগেজ হবে হালকা, অথচ কোনও দরকারি জিনিস বাদ থাকবে না। এছানাও ট্র্যাভেল করার সময় কিছু জরুরি বিষয় মাথায় রাখা প্রয়োজন। আপনার জন্য রইল কিছু সহজ টিপস।


কী করবেন চেষ্টা করুন লাগেজ ব্যাগ যথাসম্ভব হালকা রাখতে। তাই লাগেজ ব্যাগ কিনুন বুদ্ধি করে। দেখতে ভাল হওয়ার চাইতেই আগে দেখুন কোনটায় বেশি রাখার জায়গা আছে, চেন বা খোপ বেশি আছে। চেষ্টা করুন হালকা ওজনের লাগেজ ব্যাগ কিনতে। এতে আপনি বেশি জিনিস যেমন নিতে পারবেন তেমনই বইতেও কষ্ট কম হবে। ফ্লাইটে যেহেতু একটি নির্দিষ্ট ওজনের বেশি ওজন নেওয়া যায় না, তাই আগে থেকে সেই ব্যাপারে সতর্ক থাকুন।লাগেজ ব্যাগে কম্বিনেশন লক বা অন্য কোনও লক সিস্টেম আছে কিনা দেখে নিন। বড় সুটকেস যেন অবশ্যই চাকা লাগানো হয়। না হলে বয়ে নিয়ে যাওয়া খুবই কষ্টকর হবে। জামাকাপড় রোল করে ব্যাগে ভরুন। জায়গা অনেক কম লাগবে। প্যাকিং করার সময় মনে রাখবেন ছোট ছোট সব জায়গা যেন ব্যবহার করা যায়। যেমন মোজা জোড়ায় জোড়ায় একসঙ্গে বেঁধে নিন। এবার সুটকেসে রাখা জুতো কিংবা টুপির ভিতরের জায়গায় ভরে রাখুন। লং ট্যুরের ক্ষেত্রে জামাকাপড়ে ভ্যাপসা গন্ধ হতে পারে। তাই সুটকেসে ন্যাপথলিন, ফ্র্যাব্রিক কন্ডিশনার শিট রাখুন। এতে সুটকেসের ভিতর খারাপ গন্ধ হবে না। প্যাকিং শুরুর সময় কয়েকটি জ়িপ লক ব্যাগ রাখুন। একটি ব্যাগে সমস্ত ছোট ছোট গ্যাজেট যেমন, ফোনের চার্জার, ক্যামেরা চার্জার, অ্যাডপটর, হেড ফোন ইত্যাদি রাখুন। কোনও লিক্যুইড কিছু বহন করলে সেগুলিও জ়িপ লক ব্যাগে রাখুন। যেমন শ্যাম্পু, কন্ডিশনার, বডি অয়েল, ময়শ্চারাইজ়ার ইত্যাদি। এতে কোনও কন্টেনার থেকে লিক্যুইড পড়ে গেলেও আপনার জামাকাপড় বা অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নষ্ট হবে না। আর একটি জ়িপ লক ব্যাগে রাখুন আপনার প্রয়োজনীয় ওষুধপত্র। এভাবে আলাদা করে রাখলে আপনার খুঁজে পেতেও সুবিধা হবে। পারলে আগে থেকে হোটেল রুম বুক করে রাখুন। এতে খুব বেশি ক্যাশ ক্যারি করতে হবে না। এটিএম কার্ড সঙ্গে রাখুন। ফ্লাইটের টিকিট, হোটেল বুকিংয়ের কাগজপত্র ইত্যাদি দু থেকে তিন কপি ফটোকপি করান। এবং আলাদা আলাদা লাগেজে রাখুন। এতে মেন লাগেজ থেকে কোনও একটা ডকুমেন্ট খুঁজে না পেলেও অসুবিধায় পড়বেন না। দরকারি কাগজপত্র, পাসপোর্ট সবসময় নিজের সঙ্গে রাখুন। কেবিন লাগেজে কাগজপত্র ছাড়াও একটা করে প্রয়োজনীয় জামাকাপড় ভরে নিন। কোনও কারণে মেন লাগেজ মিসপ্লেসড হলে যাতে কাজ চালাতে পারেন। বেড়াতে গিয়ে সাইট সিয়িংয়ের সময় অবশ্যই একটা সাইড ব্যাগ সঙ্গে রাখুন। এতে পাসপোর্ট, ফটো আইডি, টাকা ইত্যাদি নিজের কাছে রাখতে পারবেন। এছাড়া টিস্যু পেপার, সানগ্লাস, ক্রিম সঙ্গে রাখুন। লাগেজের পুরনো নিউজ় পেপার, পলি ব্যাগ, কাপড়ের ব্যাগ রাখুন। ভেজা জামাকাপড়, জুতো ইত্যাদি প্যাক করতে কাজে লাগবে। বেড়াতে গিয়ে কাচাকাচি করা খুবই অসুবিধাজনক। তাই ঝামেলা এড়াতে পর্যাপ্ত পরিমাণে আন্ডারওয়্যার, মোজা, রুমাল ক্যারি করুন। ভারী জিনিস যতটা সম্ভব কম নিন। মনে রাখবেন বই নিলে লাগেজের ওজন খুব বেড়ে যায়। তবে হালকা ম্যাগানিজ় নিতে পারেন। এছাড়া ফোনো ই বুক রিডার অ্যাপ ইনস্টল করে পছন্দের বই ডাউনলোড করে নিতে পারেন। কিছু কিছু প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন সাবান, শ্যাম্পু, সানস্ক্রিন, ময়শ্চারাইজ়ার এগুলি বেড়াতে যাওয়ার আগে ছোট পাউচ কিনে নিন। এতে জায়গা অনেক বাঁচবে। সঙ্গে ছোট বিস্কিটের প্যাকেট রাখুন। জার্নিতে কাজে লাগবে। বাইরে গেলে জল কিনে খান। খেয়ে বোতল ফেলে দিন। ছোট একটা বোতল ক্যারি করতে পারেন। অরণ্যে ভ্রমণে গেলে অনেকেসময় টেন্টে রাত কাটানো হয়। এরকম অ্যাডভেঞ্চারের জন্য নিজেকে প্রস্তুত রাখুন। মসকিউটো রেপিলেন্ট ক্রিম, টর্চ ইত্যাদি সবসময় সঙ্গে রাখুন। পাওয়ার ব্যাঙ্ক সঙ্গে রাখুন। বেড়াতে গিয়ে অনেক সময়ই এক জায়গা থেকে আর এক জায়গায় যাওয়ার সময় গাড়ির মাথায় লাগেজ রাখা হয়। যাত্রাপথে বৃষ্টি হলে অনেকসময় প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ভিজে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই এরকম জার্নির সময় সুটকেসে জন্য ওয়াটারপ্রুফ কভার পরিয়ে রাখুন।
.

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>