পর্দা নামলো ভার্স অ্যান্ড ভার্চুয়াল চিত্র প্রর্দশনীর


‘ভার্স অ্যান্ড ভার্চুয়াল’ শিরোনামে চিত্র প্রদর্শনীর পর্দা নামলো ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের জয়নুল গ্যালারীতে। আট শিল্পীর আঁকা ৪০টি ছবি প্রদর্শনীতে ঠাঁই পেয়েছিল।

নবীন চিত্রশিল্পী মেহেদী হাসান অনিক, মাহমুদা আক্তার, নূপুর পোদ্দার, রাজীব মাহবুব, ইলিয়াস খান, পলাশ শেখ, সুদীপ চাকমা, রুপক গোলদারের আঁকা মানুষ ও প্রকৃতির নৈকট্য বিষয়ক চিত্রকর্মগুলো প্রদশর্নীতে আসা দর্শনার্থীদের মন ছুঁয়ে যায়। ইট পাথরের নগরীতে থাকা নাগরিকদের খানিকটা যেন সবুজের দোলা দিয়ে গেল এই চিত্র প্রদশর্নী।

বর্তমান সময়ে ভার্চুয়াল জগৎ যখন প্রায়শই মানুষের একমাত্র চারণক্ষেত্র হয়ে উঠেছে, তখন মানুষের কাছে বাস্তবতার ঘ্রাণ পৌঁছে দিতে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের আট তরুণ তুর্কী তাদের রং তুলির ক্যানভাসে গড়েছেন জলরং চিত্রের স্বর্গরাজ্য।

তরুণ শিল্পীরা ক্যানভাসে তুলে ধরেছে বিশ্ববিদ্যালয় ও তাঁর আশে পাশের এলাকার সবুজ আঙ্গিনার নৈসর্গিক চিত্র। পাথুরে জীবনে প্রকৃতির সুর বইয়ে দিতেই তাদের এই ‘ভার্স অ্যান্ড ভার্চুয়াল’ জলরং চিত্র প্রদর্শনী। এই প্রদর্শনীতে মূলত উঠে এসেছে প্রকৃতি প্রেম ও নৈসর্গিক সৌন্দর্য।

জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা বিভাগের (স্নাতকোত্তর) ড্রইং অ্যান্ড পেইন্টিং ডিসিপ্লিন এর ২য় ব্যাচের শিক্ষার্থী রাজিব মাহবুব জানান জলরং এর ন্যাচার স্টাডি তাদেরকে বিশেষভাবে অনুপ্রাণিত করেছে । 

চিত্রকর্ম প্রদর্শনীটির উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের অধ্যাপক ও বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদের সভাপতি শিল্পী জামাল আহমেদ ।

প্রদর্শনী উপলক্ষে শুভেচ্ছাবাণীতে তিনি বলেন, এ প্রদর্শনীর কাজগুলোতে আউটডোরে বসে ছবি আঁকার প্রভাব লক্ষণীয়। তারা তাদের নিসর্গ চিত্র আঁকার মাধ্যমে ‘ভার্স অ্যান্ড ভার্চুয়াল’  শিরোনামে যা বলতে চেয়েছে তা সময় উপযোগী।
অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দেশবরেণ্য চিত্রশিল্পী কনক চাপা চাকমা, শিল্পী দুলাল চন্দ্র গাইনসহ প্রমুখ।

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত