একপেশে জয় দিয়ে নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপ মিশন শুরু

বিশ্বকাপের তৃতীয় ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে ১০ উইকেটে পরাজিত করেছে নিউজিল্যান্ড। কার্ডিফে শনিবার প্রথমে ব্যাট করে পাকিস্তানের দেখানো পথে হেঁটে ১৩৬ রানেই অলআউট হয়ে যায় ১৯৯৬ বিশ্বকাপ জয়ী শ্রীলঙ্কা। আগেরদিন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১০৫ রানে অলআউট হয়েছিল পাকিস্তান। এদিন ৩১ রানে এগিয়ে তাদের এশিয়ান প্রতিবেশীরা।
জবাব দিতে নেমে দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও কলিন মুনরোর ঝড়ো ফিফটিতে দ্রুতই ম্যাচ শেষ করে দেয় নিউজিল্যান্ড। ৫১ বলে ৮ চার ও ২ ছয়ে ৭৩ রান করেছেন গাপটিল। মুনরো খেলেছেন ৪৭ বল। ৬ চারের সঙ্গে এক ছয়ে করেছেন ৫৮ রান। মূলত পেসারদের বানিয়ে দেয়া মঞ্চে দ্রুত কাজ সেরেছেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার।


এর আগে টসে জিতে কিউই অধিনায়ক উইলিয়ামসন শ্রীলঙ্কাকে আগে ব্যাটিংয়ে পাঠায়। টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে স্কোরবোর্ডে ৬০ রান জমা করতেই সাজঘরে ফিরে যান ৬ লংকান ব্যাটসম্যান। এর মধ্যে কিউই পেসার ম্যাট হেনরি একাই নেন ৩ উইকেট।

 

ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৪ রানে ওপেনার থিরিমান্নেকে হারানোর পর কুশল পেরেরাকে নিয়ে লড়াই করার আভাস দিয়েছিলেন অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। কিন্তু নবম ওভারে আবার হেনরির জোড়া আঘাত। প্রথম বলে ২৯ রান করা পেরেরা ক্যাচ দেন গ্রান্ডহ্যামকে। আর দ্বিতীয় বলে নতুন ব্যাটসম্যান কুশল মেন্ডিস গোল্ডেন ডাক নিয়ে ফিরে গেছেন মার্টিন গাপটিলের তালুবন্দী হয়ে। দলীয় ৫৩ রানে ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে ফিরিয়েছেন আরেক পেসার লকি ফার্গুসন।

তবে একপ্রান্ত আগলে রেখে খেলার হাল ধরার চেষ্টা করেন অধিনায়ক করুণারত্নে। ইনিংস উদ্বোধন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন করুনারত্নে। ৫২ রানের এক ইনিংসেই তাই রেকর্ড হলো। বিশ্বকাপে এই প্রথম কোনো অধিনায়ক ‘ক্যারিং দ্য ব্যাট থ্রু এ ইনিংস’ করে দেখালেন। এর আগে বিশ্বকাপে ‘ক্যারিং দ্য ব্যাট থ্রু এ ইনিংস’ দেখেছে ১৯৯৯ সালে। তবে রিডলি জ্যাকবসের ঘাড়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের নেতৃত্ব ভার ছিল না সেবার। শেষ দিকে থিসারা পেরেরার ২৩ বলে ২৭ রান ছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছাতে পারেনি। যার ফলে ২৯.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ১৩৬ রানে গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা।

নিউজিল্যান্ড বোলারদের মধ্যে ম্যাট হেনরি ও লাকি ফার্গুসন ৩টি, মিচেল স্যান্টনার, ট্রেন্ট বোল্ট এবং জেমস নিশাম একটি করে উইকেট শিকার করেন।

 

 

 

.

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত