পরিসংখ্যানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা

Reading Time: 2 minutes

বিশ্বকাপের শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তানের। নিজেদের প্রথম ম্যাচে হারের স্বাদ নিয়েছে তারা। তাই হারের স্বাদ নিয়ে আজ মঙ্গলবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। এ ম্যাচ দিয়েই এবারের বিশ্বকাপের প্রথম জয় তুলে নিতে মরিয়া দল দু’টি।

গত পহেলা জুন কার্ডিফেই নিজেদের প্রথম ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হয়েছিলো শ্রীলঙ্কা। টস হেরে ব্যাটিং-এ নেমে মাত্র ২৯ দশমিক ২ ওভারে ১৩৬ রানে গুটিয়ে যায় লংকানরা। দলের ব্যাটসম্যানরা ব্যর্থ হলেও, ওপেনার হিসেবে খেলতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ৫২ রান করেন শ্রীলংকার অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে। নিউজিল্যান্ডের ম্যাট হেনরি ও লুকি ফার্গুসন ৩টি করে উইকেট নেন। জবাবে ৯৭ বল মোকাবেলা করে বিনা উইকেটে ১৩৭ রান তুলে নিউজিল্যান্ডের জয় নিশ্চিত করেন দুই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও কলিন মুনরো। দলের ১০ উইকেটের জয়ে গাপটিল ৫১ বলে ৭৩ ও মুনরো ৪৭ বলে ৫৮ রান করেন।

বাজেভাবে টুর্নামেন্টের শুরু হলেও, এখনো ভালো করার সুযোগ রয়েছে বলে মনে করেন শ্রীলঙ্কার অধিনায়ক করুনারত্নে। আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচের আগে এক সংবাদ সম্মেলনে করুনারত্নে বলেন, ‘আমাদের এখনো আটটি ম্যাচ রয়েছে। আমাদের ঘুড়ে দাঁড়াতে হবে এবং ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে।’ আমাদের কী আছে তা দেখা প্রয়োজন। মিডল-অর্ডারে আমাদের কিছু জুটি গড়তে হবে। এটি এখন সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সামনে ভালো করতে মুখিয়ে আছি।’

১৯৯৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ী শ্রীলঙ্কার বাজে শুরুতে হতাশ হন দেশটির ক্রিকেট সমর্থকরা। তবে আশাহত নন করুনারত্নে। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভালো করার ব্যাপারে আশাবাদি তিনি, ‘আমি আশা করি, আফগানদের বিপক্ষে ভালো লড়াই করবে দল এবং জয় তুলে নিবে।’ এ দিকে শ্রীলঙ্কার মতো হার দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে আফগানিস্তানও। তবে ২ শতাধিক রান তুলে ম্যাচ হারে আফগানরা। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ঐ ম্যাচে ৭ উইকেটে হারে আফগানিস্তান। বিস্ট্রলে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে ২০৭ রানে অলআউট হয় আফগানরা। দলের পক্ষে নাজিবুল্লাহ জাদরান ৪৯ বলে ৫১ ও রহমত শাহ ৪৩ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স ও এডাম জাম্পা ৩টি করে উইকেট নেন। জয়ের জন্য ২০৮ রানের টার্গেটে ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের নৈপুন্যে ৯১ বল বাকী রেখেই ম্যাচ জিতে নেয় অস্ট্রেলিয়া। ১১৪ বলে অপরাজিত ৮৯ রান করেন ওয়ার্নার। তার ইনিংসে ৮টি চার ছিলো। অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ ৬টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৪৯ বলে ৬৬ রান করেন। অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের স্মৃতি ভুলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘুড়ে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিলেন আফগানিস্তানের অধিনায়ক গুলবাদিন নাইব। তিনি বলেন, ‘প্রথম ম্যাচে দলের খেলোয়াড়রা জ্বলে উঠতে পারেনি। আমাদের পরিকল্পনাগুলোও কাজে লাগেনি। তবে ঐ ম্যাচটি এখন স্মৃতি। আমরা সামনের ম্যাচের দিকে চেয়ে আছি। শ্রীলংকার বিপক্ষে ভালো পারফরমেন্স করার ব্যাপারে অনেক আশাবাদি। টুর্নামেন্টে প্রথম জয় এ ম্যাচেই পেতে চাই।’

ওয়ানডে খুব বেশি মুখোমুখি হয়নি শ্রীলঙ্কা ও আফগানিস্তান। মাত্র ৩বার একে অপরের লড়াই করেছে তারা। প্রথম দু’দেখাতে জিতলেও শেষ লড়াইয়ে আফগানিস্তানের কাছে হারে শ্রীলঙ্কা। গেল সেপ্টেম্বরে আবু ধাবিতে এশিয়া কাপের ‘বি’ গ্রুপের ম্যাচে লংকানদের ৯১ রানে হারায় আফগানরা। আর ২০১৪ সালে প্রথম মোকাবেলায় ১২৯ রানে ও ২০১৫ সালে ডানেডিনে দ্বিতীয় লড়াইয়ে ৪ উইকেটে জয় পায় শ্রীলঙ্কা।

.

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>