অস্ট্রেলিয়া-উইন্ডিজঃ ঐতিহ্য ফিরে পাবার লড়াই

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সহজ জয় পেয়েছে অস্ট্রেলিয়া এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আজ বৃহস্পতিবার তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দল দুটি। হাই-ভোল্টেজ ম্যাচে জয়ী দলটির সামনে সুযোগ থাকবে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে জায়গা করে নেয়ার। টসে জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। আর আফগানিস্তানকে ৮ উইকেটে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া।

বিগম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতে হলে ক্রিস গেইলকে নিষ্প্রভ রাখার কোনো বিকল্প নেই। সেটি জানে অস্ট্রেলিয়াও। তাই তো ক্যারিবিয়ান দানবকে ঠেকানোর জন্য ‘বিশেষ’ পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামার কথা বলেছেন অজি দলনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ।

উইন্ডিজ ম্যাচের আগেরদিন সংবাদ সম্মেলনে ফিঞ্চ বলেন, ‘প্রত্যেক বোলারেরই নিজস্ব পরিকল্পনা থাকে। যখন আপনি ক্রিস গেইলের মতো বিপজ্জনক ব্যাটসম্যানের মুখোমুখি হবেন তখন আপনাকে প্রস্তুতি নিয়েই মাঠে নামতে হবে, যেমনটা আমি আগেও বলেছি। আমাদের লক্ষ্যই থাকবে তার দুর্বল জায়গায় আঘাত হানা এবং এটা নিশ্চিত করা যে আমরা সঠিক জায়গায় বল ফেলছি।’

‘যদি তার বিপক্ষে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালান, বল হাতে যদি নার্ভাস হন তবে সে আপনাকে শেষ করে দেবে। যদি সে একবার ছন্দ পেয়ে যায়, তবে তাকে থামানো কঠিন হয়ে যাবে।’ যোগ করেন ফিঞ্চ।

নিজেদের প্রথম ম্যাচে শর্ট বলে আন্দ্রে রাসেল, জেসন হোল্ডার ও ওশানে থমাসরা পাকিস্তানি বোলারদের নাভিশ্বাস ছুটিয়েছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেও একই পরিকল্পনা নিয়ে নামবে ক্যারিবিয়ানরা। অস্ট্রেলিয়াও যে সেটার জবাব দেয়া প্রস্তুতি নিয়েই নামবে নিশ্চিত করেছেন ফিঞ্চ, ‘হ্যাঁ, আমরা এটির জন্য প্রস্তুতি নিয়েই মাঠে নামবো।’

অস্ট্রেলিয়ার ভাণ্ডারেও অস্ত্রের কমতি নেই। মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সরা গতি-সুইং-বাউন্সার আর শর্ট বলে কঠিন পরীক্ষাই নেবেন গেইলদের। ফলে ট্রেন্টব্রিজে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাসই মিলছে।

টিম নিউজ: অস্ট্রেলিয়া দলে কোনো ইনজুরি সমস্যা নেই। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে গত ম্যাচের অপরিবর্তিত একাদশ নিয়েই মাঠে নামতে পারে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা।

অন্যদিকে ক্রিস গেইল ইনজুরি কাটিয়ে অস্ট্রেলিয়া ম্যাচের জন্য ফিট হয়ে উঠেছেন। আন্দ্রে রাসেলের ইনজুরি সমস্যা থাকলেও তাকে একাদশে পাওয়ার ব্যাপারে আশাবাদী দু’বারের চ্যাম্পিয়নরা।

নজর থাকবে যাদের উপর
ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ): ক্যারিয়ারের পড়ন্ত বেলায়ও যে সপ্রতিভ পাকিস্তানের বিপক্ষে ৩৪ বলে ৫০ রানের ইনিংস খেলে সেটি প্রমাণ করেছেন ক্রিস গেইল। যদি নিজের চেনা ছন্দ খুঁজে পান ক্যারিবিয়ান দানব, তবে অস্ট্রেলিয়ার সব পরিকল্পনা ভণ্ডুল হয়ে যেতে পারে। অজিদের বিপক্ষে জয় পেতে গেইলের ব্যাটের দিকেই তাকিয়ে থাকবে হোল্ডারের দল।

স্টিভেন স্মিথ (অস্ট্রেলিয়া): বিশ্বকাপের আগে প্রস্তুতি ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেঞ্চুরি করে দারুণকিছুর ইঙ্গিত দিয়েছেন স্টিভেন স্মিথ। ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যারন ফিঞ্চের দারুণ পারফরম্যান্সের সুবাদে আফগানিস্তানের বিপক্ষে তেমন কিছু করার সুযোগ পাননি অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক। তবে দরকারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অজিদের মিডলঅর্ডারের স্তম্ভ হয়ে উঠতে পারেন স্মিথ।

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত