এক্সেল বিতর্কঃ “দোলের রঙ যেন ধর্মে না লাগে”

Reading Time: 2 minutesজনপ্রিয় ডিটারজেন্ট ব্র্যান্ড সার্ফ এক্সেল যে ‘রং লায়ে সঙ্গ’ নামে বিজ্ঞাপনী ক্যাম্পেন শুরু করেছে,তাতে দেখা যায় হোলি-র সময় বাইসাইকেলে চেপে একটি বাচ্চা মেয়ে তাদের মহল্লায় সব বন্ধুবান্ধবকে তার দিকে রং ছুঁড়তে বলে – যাতে একটা সময় তাদের রংয়ের বেলুন সব ফুরিয়ে যায়। আর বাচ্চা মেয়েটি এ কাজ করে একটা ছোট্ট উদ্দেশ্য নিয়ে। যাতে এরপর সে তার আরেক মুসলিম বন্ধুকে সাইকেলের পেছনে বসিয়ে নিরাপদে মসজিদে নামাজের জন্য পৌঁছে দিতে পারে! বাচ্চাদের দঙ্গলের রংয়ের স্টক ফুরিয়ে যাওয়ায় তারা তখন আর কোনও বেলুন ছুঁড়তে পারে না – আর মুসলিম বাচ্চা ছেলেটিও তার ধবধবে সাদা কুর্তা পাজামায় কোনও রঙের দাগ না-লাগিয়েই পৌঁছে যায় মসজিদের দোরগোড়ায়। তবে এই আপাত-নিরীহ, সম্প্রীতির সুন্দর বিজ্ঞাপনী গল্প নিয়েও ভারতে ভীষণ তিক্ত প্রতিক্রিয়া লক্ষ্য করা যাচ্ছে। দু-চারদিন আগে সার্ফ এক্সেল এই বিজ্ঞাপনের ভিডিওটি প্রকাশ করার পর থেকেই অনেকেই সোশ্যাল মিডিয়াতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাতে শুরু করেন, এর মাধ্যমে না কি কথিত ‘লাভ জিহাদ’ বা হিন্দু মেয়ের সঙ্গে মুসলিম ছেলের প্রেমে প্রশ্রয় দেওয়া হচ্ছে। এই বিজ্ঞাপনে যে গল্প বলা হয়েছে, তার একটি বিকল্প ন্যারেটিভ তুলে ধরতে অনেকে আবার হিন্দু পুরুষদের সঙ্গে হিজাব-পরিহিত মুসলিম মহিলাদের হোলি খেলার ছবি পোস্ট করতে শুরু করে দেন। এতেই শেষ নয়, সার্ফ এক্সেল-সহ তাদের নির্মাতা সংস্থা হিন্দুস্থান ইউনিলিভারের যাবতীয় প্রোডাক্ট বর্জন করারও ডাক দেওয়া হতে থাকে। গত শনিবার থেকেই ভারতে দারুণভাবে ট্রেন্ড করতে থাকে (হ্যাশট্যাগ) বয়কটসার্ফএক্সেল। পাশাপাশি আবার অনেকেই অবশ্য ভালবাসা, বন্ধুত্ব ও সম্প্রীতির দারুণ নজির হিসেবে এই বিজ্ঞাপনটির প্রশংসাও করতে থাকেন। তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে তাদের সংখ্যা ছিল তুলনায় অনেক কম। অপর দিকে জনপ্রিয় পোর্টাল কলকাতা 24×7 কে দেয়া অভিমতে দুই কবি সুবোধ সরকার ও মন্দাক্রান্তা সেন দুই ভাবনায় দেখছেন বিজ্ঞাপনটিকে। বিজ্ঞাপনে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি দেখাতে গিয়ে আদপে বিভাজনের কথাই বলা হয়েছে, এমনটাই মনে করছেন বাংলাভাষার স্বনামধন্যা কবি মন্দাক্রান্তা সেন৷ বাংলা কবিতার এই সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রতিবাদি কবি সুবোধ সরকার বিজ্ঞাপনটি নিয়ে বলেন, ‘‘দোল একটি উৎসব৷ রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন রঙ যেন মর্মে লাগে৷ আমি বলব দোলের রঙ যেন ধর্মে না লাগে৷’’   অন্য দিকে এই বিজ্ঞাপনে ক্ষতিগ্রস্থ মাইক্রোসফট এক্সেল অ্যাপ। কেউ কেউ না বুঝেই প্লেস্টোরে থাকা মাইক্রোফটের এক্সেলের অ্যাপে নেতিবাচক রিভিউ লিখেছে। সেই সঙ্গে রেটিং দিয়েছে ১ স্টার। আদতে  সার্ফ এক্সেল ও মাইক্রোসফটের কোনো চুক্তি নেই। তাদের ব্যবসাও আলাদা পণ্য নিয়ে।    

Leave a Reply

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

You may use these HTML tags and attributes:

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>