প্রকাশিত হল ক্রিকেট বিশ্বকাপের থিম সং “স্ট্যান্ডবাই”


প্রকাশিত হল ICC ক্রিকেট বিশ্বকাপের থিম সং “স্ট্যান্ডবাই”। গানটি গেয়েছেন ব্রিটেনের বিখ্যাত গায়িকা লরেন। ড্রাম ও বেস ব্যান্ডে সংগত দিয়েছে রুডিমেন্টাল। বিশ্বকাপের গানের কথায় উঠে এসেছে অংশগ্রহণকারী 10টি দেশের একতা।


প্রকাশিত হল ICC ক্রিকেট বিশ্বকাপের থিম সং “স্ট্যান্ডবাই”। গানটি গেয়েছেন ব্রিটেনের বিখ্যাত গায়িকা লরেন। ড্রাম ও বেস ব্যান্ডে সংগত দিয়েছে রুডিমেন্টাল। বিশ্বকাপের সময় মাঠে ও ব্রিটেনের বিভিন্ন অনুষ্ঠানে এই গান পারফর্ম করবে রুডিমেন্টাল। বিশ্বকাপের গানের কথায় উঠে এসেছে অংশগ্রহণকারী 10টি দেশের একতা। প্রথম দুটি ক্রিকেট বিশ্বকাপে দাপট ছিল ক্যারিবিয়ানদের। তাই গানের ভিডিয়োর শুরুটা হয়েছে তাদেরকে নিয়েই। দেখানো হয়েছে, ক্যারিবিয়ান সৈকতে ক্রিকেট খেলতে থাকা কিশোরদের বল ভেসে যায় সাগরে।স্ট্রেট টু UK। সেলুনে বসা দুই বাংলাদেশি টেলিভিশনে ক্রিকেট দেখতে ব্যস্ত, তাদের সামনে সেলুনে থাকা বল নিয়ে যায় এক ইংরেজ কিশোর । বন্ধুদের সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করতে করতে বল ছুড়ে দেয় সামনে। গাড়ি ধুতে থাকা এক অস্ট্রেলিয়ানের কাছে। সেখান থেকে বল এগিয়ে যায় । রাস্তার ধারে এক ইংরেজ যুবতি পাকিস্তানি আরেক যুবতির গালে এঁকে দেয় সেদেশের পতাকা। এরপর দেখানো হয়েছে, দুই প্রবীণ ক্যারিবিয়ান ডাইস গেম নিয়ে বসেছেন। এদিকে দুই সাউথ আফ্রিকান খুব ব্যস্ত । ওদিকে আফগানিস্তান, শ্রীলঙ্কা ও ক্যারিবিয়ানরা জমাটি এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। সেখানে যোগ দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ানরাও। সবার উপস্থিতিতে অনুষ্ঠান এক অন্য মাত্রা পায়। নাচে গানে কমে যায় সমস্ত দেশের ভৌগলিক দূরত্ব । এদিকে ভারত ও নিউজ়িল্যান্ডের তিন কিশোরী নিজেদের মধ্যে সাইকেল রেস করছে।
এর পর সবাই এক সাথে গানের তালে কোমর দোলালেন। ওদিকে রাস্তার ধারে ডাইস হাতে উল্লাসে ফেটে পড়লেন দুই প্রবীণ। এর মাঝেই বল নিয়ে হাজির এক শ্রীলঙ্কান। গানের তালে নেচে বল এগিয়ে দিলেন সামনে। বল চলে যায় ওই ক্যারিবিয়ান বৃদ্ধের হাতে। পড়ন্ত সূর্যের আলোয় যিনি খুজঁছেন সোনালী অতীত। ওদিকে বলের অপেক্ষায় সেই ক্যারিবিয়ান কিশোর। আর বল চলেছে নতুন ভোরের দিকে।

.

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত