মাদার্স ডে হোক অভিনব কিছু হ্যান্ড-মেড গিফটে

আজ মাদার্স ডে। গত বছরে পকেট মানি খরচ করে মায়ের জন্য টুকটাক কিছু উপহার কিনে থাকলেও লকডাউনের বাজারে তার সুযোগ নেই। লকডাউনে দোকানে গিয়ে উপহার কিনতে পারবে না তো কি হয়েছে, বাড়িতে বসেই মাকে ‘হ্যান্ড মেড’ সারপ্রাইজ গিফট দিয়ে চমকে দাও! এই মাদার্স ডেতে অভিনব কিছু গিফট আইডিয়া নিয়ে হাজির হলাম আমরা। এগুলি উনি পছন্দ করবেনই!

নিজের হাতে তৈরি করা ব্রেকফাস্ট হোক উপহার 
এইদিন সক্কাল সক্কাল উঠে ওঁর জন্য ব্রেকফাস্ট তৈরি করো! তোমার যদি রান্নার হাত থাকে তাহলে চাউমিন, বা ফ্রেঞ্চ টোস্ট বানিয়ে ফেলো। সাতসকালে গরম গরম চা আর তার দোসর হিসেবে মুচমুচে ভাজা ফ্রেঞ্চ টোস্ট দারুণ জমবে! রান্নায় বেশি হাতযশ না থাকলে চা, টোস্ট এবং ওমলেট ভেজে দাও! 

এই দিন কাজ থেকে ছুটি দাও মাকে
বছরের বাকি দিনগুলি সংসারের যাবতীয় দায়দায়িত্ব মা-র কাঁধেই থাকে। এই দিন মা-কে ছুটি দিয়ে জুতো-সেলাই থেকে চণ্ডীপাঠের দায়িত্ব নিয়েই দ্যাখো না! মা তো রোজ রান্নাত করতেন না। এখন করতে হচ্ছে। রোজ গোটা বাড়ি যিনি সাফ করতেন, হয়তো তিনিও আসছেন না। কাজেই কিচেনের হাল ভাল নয়। সাফ করার কাজে বাবাকে ডেকে নাও। হতেই পারে উনি এসব কাজে কোনও দিনই অভ্যস্ত নন। কিন্তু আজ মায়ের অনারে ওঁকেও হাত লাগাতে হবে। উনি অবশ্যই রাজি হবেন!

উপহার দাও পার্লার এক্সপিরিয়েন্স!
 লকডাউনে পার্লার বন্ধ। তাই বাড়িতেই মায়ের জন্য তৈরি করতে পারো এক্সক্লুসিভ পার্লার এক্সপিরিয়েন্স! চুল যদি কাটতে পারো তা হলে তো কথাই নেই! না হলে মায়ের হাত এবং পায়ের পরিচর্যা করতে পারো। তাঁর হাত এবং পায়ের নখ কেটে নতুন করে নেল পলিশ লাগিয়ে দাও! দই, হলুদ, মধু ও ভিটামিন ই অয়েল দিয়ে হোম-মেড ফেস মাস্ক বানিয়ে তাঁর মুখে লাগাও। তারপর মুখ ধুয়ে ক্রিম দিয়ে মাসাজ থেরাপি করো। 

প্রিয় ফিল্মের বিঞ্জ ওয়াচ
তোমার মা কি ছবি দেখতে খুব ভালবাসেন? বেশ তো, ওঁর প্রিয় সিনেমাগুলি ( ‘ববি’ হোক বা ‘সাউন্ড অফ মিউজিক’) ডাউনলোড করে একসঙ্গে বসে দেখতে পারো! 

মায়ের গাওয়া গান বা কবিতার আবৃত্তি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করো
আমাদের দেশে এমন বহু মানুষই রয়েছেন যাঁরা সংসারের চাপে নিজের গুণগুলি লোকসমাজের কাছে তুলে ধরতে পারেননি। তোমার মাও কি এমনই একজন? তাহলে তাঁর গাওয়া একটি গান বা আবৃত্তির ভিডিয়ো করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দাও! গুণের জন্য কদর বা প্রশংসার চেয়ে ভাল উপহার আর কীই বা হতে পারে?

তোমার আঁকা পুরনো সেই মা!
মনে আছে ক্লাস থ্রিতে পড়ার সময় ছবি আঁকার প্রতিযোগিতায় মায়ের ছবি এঁকে ফার্স্ট প্রাইজ জিতেছিলে? তা যদি নাও হও, ছোটবেলার সেই আঁকার খাতায় নিশ্চয় রঙিন পেনসিলে ধ্যাবড়া করে মায়ের বেশ কিছু ছবি এঁকেছিলে! সেই রকম কোনও একটি ছবি খুঁজে বের করো। বাড়িতে পুরনো কোনও কার্ড থাকলে তাতে এই ছবি সেঁটে, ভিতরে আর একটি কাগজ এঁটে তাতে ভালবাসার কথা লিখে অভিনব এই  হ্যান্ড-মেড কার্ড উপহার দিতে পারো! 

ব্যস আর কি। লকডাউনে হ্যান্ড-মেড গিফটের মাধ্যমে  ‘হোম-মেড’ মাদার্স  ডে কীভাবে পালন করবে তার একটা আইডিয়া পেয়ে গেলে! এবার শুরু হোক মাকে ইমপ্রেস করার পালা!

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত