| 5 মার্চ 2024
Categories
এই দিনে কবিতা সাহিত্য

গুচ্ছকবিতা

আনুমানিক পঠনকাল: 3 মিনিট

আজ ২৪ এপ্রিল কবি শাকিলা তুবার শুভ জন্মতিথি। ইরাবতী পরিবার কবিকে জানায় শুভেচ্ছা ও নিরন্তর শুভকামনা।


 

 


এপ্রিলের ফুল


এপ্রিল এলেই মনে হয় জন্ম নেবার এখনই সময়
এক নারীর প্রসব সুখে লু্কনো অসুখ
লিকলিকে হাতে স্পষ্ট শিশুর উল্লাস
মনে পড়ে যায়, এপ্রিল আমার জন্মমাস।

কবে যেন মা বলেছিল, যুদ্ধের দিনে জন্ম বলেই
অমনিতর খাপছাড়া তলোয়ার আমি
চশমাটা হাতে নিলে কেবলি দু’টো গোল্লা দেখি, ফ্রেম আঁটা
অথচ নাকি দেহধারনকালে আমার চোখ ছিল বাদামী।

পিতা আর ফেরেননি যুদ্ধক্ষেত্র থেকে
শোনা হয়নি, ‘আয় খুকু আয়’ বলে কোনো ডাক
তবু এপ্রিল এলেই তেজী এই পুরুষের শার্ট চেপে ধরি আর বলি,
যুদ্ধে যাবি না ছেলে, খবরদার।

এপ্রিল শেষতক দুর্বিনীত বর্ধাপণ দিনের অপর নাম
প্রতি মূহুর্তেই জন্ম নেবার, আঁতুরঘরের গন্ধ শোঁকার অদম্য সময়
এ মাসেই বাকিংহাম প্যালেস ঠিকরে আলো চমকায়
এপ্রিল বড় অদ্ভুত মাস, আমার জন্মমাস।

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

 


লুশিয়াস ভ্যানিলা আইসক্রিম


অনেকদিন কেটে গেল রঙহীন ঋতুর সম্ভারে—

যেন ফ্রেমের ছবিরা হাঁটছে অথবা শুনছি টুকরো কিছু কথা
‘তাড়াতাড়ি ফিরিস তুবা, আইসক্রিম জমছে ফ্রিজে’ বা
‘ভেজা চুলে ঘুমোতে নেই মা ঠান্ডা বসে যাবে’।

 

ধীর পায়ে হেঁটে যায় শীতার্ত রমনী চোখের করিডোরে
একটু হাসি, তীর্যক চাহনী আর বাঁকানো আঙ্গুলে
মুঠো মুঠো অক্ষর গড়িয়ে আসছে কি আমারই দিকে?

ঘরের উপর পোকার বাসা, বুক টান টান ঘাসেরা বাড়ছে
নীচ থেকে রমনী তবু মৃদুস্বরে বলে ওঠে, ‘কেঁদো না মা,
মানুষই এমন ক্রমাগত বিনাশের দিকে যায়’।

 

এমনি অনেকটা দিন চলে যাবে শোকের কড়া গুণে
শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা অথবা বসন্তে কিই বা যাবে আসবে
প্রতিটি নতুনই তবু ক্লান্তিকর, বিনাশের বার্তাবাহক।

তারপরও যাবে সময় আরো আরো রঙহীন ঋতুর বিরহ নিয়ে।

 

Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com


তহিঁ


 
তখন আসলে কিছুই ছিল না
তখন মনমরা গাঢ় রোদ
তোমার হাসির ভেতর থেকে বালিকা
বেরিয়ে আসত মন্থর ড্রাগ
অনুরক্ত পরশুগুলো ঝিমিয়ে ঝিমিয়ে
রোদ পোহালো কত
তখনও আসলেই কিচ্ছু ছিলনা।
 
সময় তখনো ক্ষণস্থায়ী
যদিও অতীতটা দীর্ঘ ছিল
সৎকারযোগ্য তোমার শরীর
বেলচা ভর্তি মাটি ছিল সবুজ রোদেলা রঙ
জনাকীর্ণ দৃশ্য সব তুমিও হামানদিস্তায় পিষে
বালিকা, ও বালিকা
আকাশে পুঁতে রেখেছ কয় মানুষের মৃতদেহ!
 
তখনো কিছুই ছিলনা
গোটা কয়েক ইতস্ততঃ ছড়ানো
বালক-বালিকার দীর্ঘ অতীত ছাড়া,
বুক উৎসারিত কিছু দীর্ঘ দীর্ঘশ্বাস ছাড়া
আসলে সবই ফাঁপা,
দৃষ্টিহীনতার আগাম আভাস
ওহ হিইনাস! ওহ ওহ বালিকা!
 
 

রৌদ্রস্নাত রাত


 
স্বপ্নের সাথে ক’টা রাত জমে যায়
ছায়ার মতো, হ্যাঁ ঠিক যেন ছায়া
আমার মিষ্টি কুকুর এথেনা
যে কিনা চলে গেছে অর্নবের বন্ধুর সাথে
ছায়ার মতো দৌঁড়ে আসে সেও
 
বন্ধ ফেসবুকের দরজায় বসে থেকে থেকে
ক্লান্ত আমি ফের নতুন স্বপ্নের হাত ধরি
হোসনে আরা বেগম আপার হাতে
হাত রেখে বলা হয়না আর
আমার স্বপ্নগুলোও আজকাল বড় ক্লান্তরে আপা
 
আমি ক্লজেট গোছাই বারবার
রান্নাঘরের সিঙ্ক চকচকে করে তুলি খামোখাই
আমি প্রতীক্ষায় থাকি অনেক স্বপ্নের
ইউটিউবে অলিভিয়া থেকে নিকোল কিডম্যান
সব ঘাঁটাঘাঁটি শেষে আমি সেই একা তুবা
 
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
 

মুদ্রার ঐ পিঠ


 
দরজা খুলতেই একজন হ্যাকার
হাতে ধরিয়ে দিল ফরাসী কবিতার ভাবানুবাদ
কয়েকটা চীৎকার, ভুল রামধনু রঙ
সাথে একবোতল শ্যাম্পেন
অথচ কেউ জোরে জোরে বলছে
না, নাআআআআ
 
তারপরও উঠল ক্রন্দন
বলা হলো, এই মুখটা ভুল
এই হাতগুলো ভুল মানুষের হাত
 
সব ভুল থেকে র-শ্যু উকার ছেঁটে
একটা আ-কার বসিয়ে দিলেই
জোর বাতাস বইবে, পাতায় পাতায় শনশন
হেমন্তের সূর্যডোবা নদী; ভাসমান সুখী ডিঙি
বলে দেবে, ভুলেরা আসলে ভাল
যে আরো চায় শুধু সে-ই ভাবুক ‘ভালবাসা’।
 
 
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

প্রেম চাইনি আমি অপ্রেমের দিনেও


 
এই দেখো আয়নায়
একটা ট্রেন হুঁশ করে চলে গেল
গন্তব্যের ইশারায়…
চোখ থেকে লাফিয়ে লাফিয়ে কাশবন
নির্দ্বিধায় পার হল
সিনাইয়ের চূড়া;
কয়েকটা খাঁড়ি।
 
ট্রেনটা ফিরে এল না অথচ
রেললাইনের স্লিপার থেকে পাথরগুলো
পায়ে পায়ে হেঁটে হেঁটে এল
কাশবনের কাছে
এবং অতঃপর…
আয়নার পারদটুকু
খেয়ে ফেলল দ্বিধাহীন।
Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত