জয়া ঘটকের একগুচ্ছ কবিতা

আজ ১২ জুন কবি,অধ্যাপক জয়া ঘটকের জন্মতিথি। ইরাবতী পরিবার তাঁকে জানায় শুভেচ্ছা ও নিরন্তর শুভকামনা।


নাগরিক

ভুলে ভরা

খসড়া পত্র

উদ্ধত বেয়নেট

কে তুমি?

ভূমিপুত্র!

রাষ্ট্র কী বলে?

নতজানু হও

না হলে

গর্দান

দাও।

 

 

গতজন্ম ধোঁয়াশা

পরজন্ম মানি না।

তাই

কোথা থেকে এসেছি

জানি না!

কোথায়  যাবো?

তাও জানি না!

প্রেম বলতে যদি

শুধু শরীর বোঝো!

তাহলে বলি শোনো।

হৃদয়ে কান পাতো

শুনতে পাবে

নৈঃশব্দ্যের কোলাহল!

ওটাই সত্যি!

বাকি সব তো

মৃত্যুর নামতা!

 

 

গানভঙ্গ

একটি গান শেষের পথে।তখনই অন্য গান নতুন সুরে শুরু!

শূন্যস্থান শূন্য রেখো না হে ঈশ্বর…

পূর্ণ করো নিজের তানে!

এখানে শূন্যতার পূজারীও পূর্ণতার আকাঙ্ক্ষা মনে

রেখে দেয় লুকিয়ে! আসলে সব মুখোশের খেলা!

মুখ হার মেনে যায় তাই বারবার!

 

 

সীমারেখা

এখনই করো না শেষ
দেখো,শেষের আঁখিও ছলছল !

প্রেমের সীমান্ত বেঁধে দিও না!
দেখো, সীমান্তের বাঁধেও জল থৈ থৈ!

পাথুরে হৃদয় ঢেকে রাখো নিঃশব্দে !
শোনো, নৈঃশব্দ্যের নীচে শব্দের জলোচ্ছ্বাস!

কথা দিয়ে কথা না রাখার যন্ত্রণা।
শোনো,ঢেকে রাখা সজল বুকে।

তোমার রাস্তা যখন বাঁক নিচ্ছে নতুন
পথে।আমি তখন দাঁড়িয়ে আছি
গতকালের পথেই….

 

 

 

 

.

 

 

 

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত