| 28 ফেব্রুয়ারি 2024
Categories
সেল বাজার

বইমেলা ২০২০

আনুমানিক পঠনকাল: 3 মিনিট

মেলা বাঙালি লোক-সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। একালে নাগরিক জীবনকেও স্পর্শ করেছে মেলা। মেলার উপলক্ষ ও অনুষঙ্গের বহুমাত্রিকতার প্রমাণ বইমেলা। নতুন বছরের শুরুতেই বইমেলার বাতাস বইবে কলকাতা ও তার আশপাশের জেলা গুলোয়, সদ্য বইমেলা শেষ হলো ত্রিপুরায়, আসামের বইমেলা আসছে, মহান ভাষা আন্দোলনে বাঙালির আত্মদানের মাস ফেব্রুয়ারি জুড়ে বাংলাদেশে বাংলা একাডেমি আয়োজন করে বইমেলার। এই মেলা বাঙালির আধুনিক জীবন-সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ২০২০ বইমেলায় প্রকাশ পাবে যে সব বই তা নিয়েই ইরাবতীর আয়োজন “বইমেলা”।

আজ থাকছে কর্মকার অনুপ কুমারের ২০২০ বইমেলায় নৃ প্রকাশনের প্রকাশিতব্য গল্পের বই ‘পদ্মগামী জলের গল্প’ বইটি নিয়ে কিছু কথা।

বইটির মূল্য: ২০০


Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
২০২০ বইমেলায় প্রকাশিতব্য গল্পের বই ’পদ্মগামী জলের গল্প’র প্রচ্ছদ

বইটি নিয়ে কথাসাহিত্যিক মনি হায়দার লিখছেন:

মানুষের জীবন গল্পেরই জীবন। বিচিত্র ব্যাখ্যাতীত অনুভূতি রক্তঅভ্যুন্থানই গল্পের অকৃত্রিম কলকবজা। গল্প কিভাবে গল্পকারের মনোজগতে ভাস্বর হয়, এক বিস্ময়। সেই বিম্বিত বিস্ময়ের নায়ক গল্পকার কর্মকার অনুপ কুমার। জন্ম এবং অভিজ্ঞতার মানচিত্র থেকে আখ্যানের অভিলাষে লিখছেন গল্প। না, সেই গল্প আকাশ পাড়ি দিয়ে ভিনদেশে যায়নি, গল্প এসেছে বাংলার শাশ্বত জমিনে, বাঙালির চিরায়ত কল্যাণবোধের জমিন থেকে। গল্পবইয়ের নাম ‘পদ্মগামী জলের গল্প’। পদ্ম কে? পদ্ম গল্পকার কর্মকার অনুপ কুমারের সুন্দর চিন্তার একটি সবুজ গ্রাম। যে গ্রামে কোনো দুঃখ নেই, বিরহ নেই, অসুখ নেই… কেবলই সুখের চাষাবাদ। সুখ প্রকৃতপক্ষে অসুখেরই ভিন্ন নাম। সেই সুখের পিছনে ছুটছেন গল্পকার কর্মকার অনুপ কুমার। ‘পদ্মগামী জলের গল্প’ গল্পগ্রন্থে নাম ভূমিকার কোনো গল্প নেই কিন্তু অন্য ছয়টি গল্পে লোকায়ত বাংলার হাসি কান্না আর বিচিত্র শুভভোধের শ্রাবণধারা আঁকবার চেষ্টা করেছেন নিজস্ব চেতনার সবুজ রঙে। গল্পকার আধুনিকতার মোড়ক পরিহার করে ফেলে আসা দিনের গল্প লিখছেন ফেলে আসা সময়ের গল্পের রঙিন ক্যানভাসে। কর্মকার অনুপ কুমারের এই গল্পগুলোই আমাদের মনে করিয়ে দেয় চিরায়ত বাংলার লৌকিক রুপ।

আধুনিকতার মুখোশে আটা বিরুদ্ধ সময়ের বিরুদ্ধে স্থির থেকে ‘পদ্মগামী জলের গল্প’ আমাদের নিয়ে যাবে চিরন্তন সত্য ও সুন্দরের দুয়ারে। এই বিষাক্ত সময়ে একজন নবীন গল্পকারের এই আয়োজনকে শত দুয়ার খুলে স্বাগত জানাই।

মনি হায়দার
কথাসাহিত্যিক


Irabotee.com,irabotee,sounak dutta,ইরাবতী.কম,copy righted by irabotee.com
বইমেলা ২০২০ এ প্রকাশিতব্য’পদ্মগামী জলের গল্প’ বইটির লেখক কর্মকার অনুপ কুমার

বইটির মুখবন্ধ ও লেখকের কৈফিয়ত:

মুখবন্ধ
একজন মানুষের জীবনে সে যত রকমের উদ্যাপন দেখেন তার কল্পিত চিন্তাগুলোকেই আমার কাছে গল্প বলে মনে হয়। বাঙালীর আবহমান সংস্কৃতির চৈতন্য ধারণ করে এই বইয়ের অধিকাংশ গল্প লিখেছি। যারা বিশুদ্ধ বাংলা সংস্কৃতির চৈতন্য হৃদয়ে ধারণ করেন তাঁদের জন্য এই বইয়ের গল্পগুলো সুখপাঠ্য হবে বলে আমার বিশ্বাস।

গল্প রচনার ভাষা নিয়ে দু’টি কথা না বললেই নয়। বাংলা সাহিত্য একসময় সাধু ভাষায় রচিত হতো। যুগের সাথে তাল মেলাতে ও নান্দনিকতার উৎকর্ষ বিধানে সে প্রথা ভাঙ্গা হয়েছে। তবে এ কথা সত্য যে ভাষার সেই নান্দনিক উৎকর্ষ বৃদ্ধির নামে এখন প্রচুর বাংলা শব্দ হারিয়ে গিয়ে তার স্থান দখল করেছে কিছু অপ্রয়োজনীয় বিদেশী শব্দ। পদ্মগামী জলের গল্প বইয়ের গল্পগুলো রচনার প্রাক্কালে এ চিন্তা আমাকে ভাবিয়েছে। ভাষা আমাদের আবহমান সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। যুগে যুগে এর নান্দনিকতার উন্নতির জন্য যেমন গবেষণার প্রয়োজন তেমনি এর বিকৃতি রোধে সচেতন সাহিত্য-কর্মীদের এগিয়ে আসা উচিৎ বলে আমি মনে করি। সেই চিন্তার ধারাবাহিকতায় এই বইয়ের সকল গল্পে ভাষার প্রয়োগে সচেতন থাকার চেষ্টা করেছি।

পদ্মগামী জলের গল্প বইটির অধিকাংশ গল্প রচনার পর আমার সামসময়িক সাহিত্যিক বন্ধুদের পড়তে দিতাম। আমার সেসব সাহিত্যিক বন্ধুদের সচেতন, নান্দনিক ও গঠনমূলক সমালোচনা গল্পগুলো নিয়ে পুনঃ পুনঃ কাজ করার জন্য সুযোগ তৈরি করে দিয়েছে। সকল সমালোচক বন্ধুদের প্রতি কৃতজ্ঞতা।

বিশুদ্ধ ভাষাসমৃদ্ধ বাংলা সাহিত্যের জয় হোক।

─ কর্মকার অনুপ কুমার

০৭ই কার্ত্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
বরিশাল

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

error: সর্বসত্ব সংরক্ষিত