অনশনে চাকরি প্রার্থীরা

স্কুল সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে শূন্যপদ পূরণের দাবিতে ধর্মতলার মেয়ো রোডে অনশনে বসেছেন চাকরি প্রার্থীরা। অনশনটি ২৮ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে এখনো চলছে। ইতিমধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন বেশ কিছু অনশনকারী। গত ১০ দিনে এখন পর্যন্ত ৩৮ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। চাকরি প্রার্থীদের দাবি, যতক্ষণ পর্যন্ত তাঁদের দাবি না মেনে নিচ্ছে সরকার, ততক্ষণ তাঁদের এই অনশন কর্মসূচি চলবে। অনশনকারীদের কেউ সন্তানসম্ভবা, কেউ কোলে শিশু নিয়ে বসে। তবুও তাঁরা দাবীতে অনড়।
অনশনে বসেছেন রাণী সোরেন কোলে এক বছর তিন মাসের সন্তান কঙ্কন। সঙ্গে এসেছেন স্বামী কান্তলাল হেমব্রম।বিপিইএড পাস রাণী সোরেন শুধু নন, একইসঙ্গে সাড়ে তিনশোজন লাগাতার অনশনে বসেছেন এসএসসি-র মাধ্যমে নিয়োগের দাবিতে। তিনজন গর্ভাবস্থায় অনশনে বসেছেন। অনশনকারীদের আন্দোলন দানা বাঁধার পিছনে কোনও রাজনৈতিক ইন্ধন নেই বলেই তাঁদের দাবি।
ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের মত সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেই এই সংগঠন তৈরি হয়েছে এসএসসি যুব-ছাত্র অধিকার মঞ্চ’ গঠন করে স্বচ্ছ নিয়োগের দাবিতে পথে নেমেছেন সদস্যরা আন্দোলনকারীদের দাবি, কোনও মেরিট তালিকা প্রকাশ করা হয়নি।
‘এসএসসি যুব-ছাত্র অধিকার মঞ্চ’ গঠন করে স্বচ্ছ নিয়োগের দাবিতে পথে নেমেছেন সদস্যরা। এসএসসি নিয়োগে দুর্নীতি হচ্ছে। ইন্টারভিউতে ডাকার কোনও নিয়ম মানা হয়নি, দাবি আন্দোলনকারীদের রাজ্যে ৬০-৭০ হাজার শিক্ষকের পদ শূন্য থাকলেও কোনও নিয়োগ করছে না রাজ্য সরকার, বলছেন মঞ্চের সদস্যরা।
সূত্রঃ আই ই বাংলা

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত