পৃথ্বী বসুর কবিতা

আজ ১ জুলাই কবি ও সম্পাদক পৃথ্বী বসুর জন্মতিথি। ইরাবতী পরিবার কবিকে জানায় শুভেচ্ছা ও নিরন্তর শুভকামনা।


থাকা

শেষরাত্রে পুনর্বার, ঝড়ে…

আমার অতীত দুঃখ
কর্পূরের মতো আলোঘরে

টিমটিম করে জ্বলে

যে-মুহূর্তে তুমি পাও টের

আমায় জড়াও, যেন এই দুঃখ
তোমারও নিজের

 

রাস্তা

অপার সংযম নিয়ে
আজ এসেছি তোমার পাড়ায়

ছাতিমের গন্ধে বিষ
আমাদের পথ বেঁকে যায়

ভিতরে চাবুক ক্ষিপ্র
উদাসীন আজ্ঞাবহতায়

দুজন দুদিকে যাই
সংক্রামক চোখে, ইশারায়

 

বোকাদের পৃথিবী

৬.
উঁচু খাট থেকে বসে দেখি

কালো পিঁপড়ের দল
মরা আরশোলা নিয়ে, চলে যাচ্ছে ওই

দূরের সেদিন ভেসে ওঠে

দেখতে না পাওয়ার ভিতরেও, খুব স্পষ্ট
এখনকার আমি, তুমি হয়ে
হেঁটে যাচ্ছ ভিড়ের ভিতরে

মাথা নীচু… একা…

 

জ্বর

সারারাত স্বপ্নে তাঁর
চলে যাওয়া নূপুরের আওয়াজ

ঘন ঘন জলপটি
মায়ের দুশ্চিন্তা মাখা ভোর

জ্বলন্ত বিছানার পাশে
কতদিন পরে এসে আজ

কথা বলছে ফাঁকা রাস্তা
রোদ সঙ্গে করে

আর প্রতি রাস্তার মোড়ে

আমার দাঁড়িয়ে থাকা
সতেরো বছর

 

ভিলানেল

ধর্মের নামে হিংসেয় ভরা দেশে
মার খেতে খেতে মরে যাব আজ যারা
মাথা নত করে পিঠ পেতে দিই, হেসে

মতপ্রকাশের স্বাধীনতা একপেশে–
চারিদিক থেকে সন্দেহ করে তাড়া
ধর্মের নামে হিংসেয় ভরা দেশে

কারা ভোট দিল মুখোশে, ছদ্মবেশে?
বিপন্ন লোক দেখেছি বলির খাঁড়া
মাথা নত করে পিঠ পেতে দিই, হেসে

মানুষের মন ভরে গেছে বিদ্বেষে
সাম্প্রদায়িক উল্লাসে মাতোয়ারা
ধর্মের নামে হিংসেয় ভরা দেশে

এতদিন ধরে যাদেরকে ভালোবেসে
ঠকেছি চরম গণতন্ত্রের দ্বারা
মাথা নত করে পিঠ পেতে দিই, হেসে

হাত-পা গুটিয়ে সরে যাব সব শেষে
কিছু ভাবব না, আত্মরক্ষা ছাড়া
ধর্মের নামে হিংসেয় ভরা দেশে
মাথা নত করে পিঠ পেতে দিই, হেসে

 

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত