সহজিয়া (পর্ব-৩)

“আমার সকল নিয়ে বসে আছি সর্বনাশের আশায়
আমি তারি লাগি পথ চেয়ে আছি পথে যে জন ভাষায়।
যে জন দেয় না দেখা যায় যে দেখে ভালোবাসে আড়াল থেকে
আমার মন মজেছে সেই গভীরের গোপন ভালোবাসায়।”

প্রেম কি শুধু পেতে চাওয়ার নাম গো গোঁসাই?প্রেম কি শুধুই মিলনের তৃপ্তি?কে বলে,মিলনেই শুধু প্রেম সার্থক?প্রেম তো বিশ্ব চরাচরে ব্যাপ্ত।আকাশে চোখ চাও দিকিন।কি দেখছ?রাতের আধার?ভোরের আলো?আমি তো দেখি আধার আর আলোর প্রেম গো।একই আধারে অবস্থান,তবু মেলে কই?কত যুগ কেটে যায় মেলার আকুলতা নিয়ে।কত দিন আসে,রাত কাটে।আধার আর আলোর আর মেলা হয় না।তবু দুজনায় অপেক্ষায় থাকে ঊষা ও গোধূলির,একপলকের চোখের মিলনটুকুর।

নদীর দুই তীর সেই কোন পার্বত্য গিরিখাত থেকে সাথে চলা শুরু করে।কত পাহাড়,নগর,বন,বন্দর পেরোয় পাশাপাশি চলে।হাত ধরা আর হয়না তাদের।সমুদ্রের বুকে হারিয়ে যায় দুজন,মিলনের স্বপ্নটুকু বুকে নিয়েই।

মিলন হবে কতদিনে,আমার মনের মানুষেরই সনে?সেই মিলনের আশায় কত জন্ম কাটে শ্রীরাধিকার।তার পরানসখা পরান নিয়ে যায় গো।কি সে যন্ত্রণা।রাধার ব্যথায় বৃন্দাবনের পশুপাখি কেঁদে ভাসায়।নিঠুর দরদী তার ঘুমের মধ্যে ফাঁকি দিয়ে চলে গেল মথুরা।শ্রীরাধিকা তারপর কতযুগ ঘুমোয়নি আর।ওগো,তোমরা কেউ তাকে গিয়ে বলো মথুরায়,রাধারাণীর যে পরাণ যায়।কেঁদে কেঁদে আধার নামলো চোখে,আর যে অশ্রুও আসেনা।রাধারানী তো শুধুই ডুবতে জানে; গভীরে,আরও গভীরে ডোবে।প্রেমযমুনার অবগাহনেই যে তার আত্মার তৃপ্তি। কৃষ্ণপ্রেমে যে সকল জ্বালা জুড়ায় গো।মিলন?কে বলে কানুর প্রনয় শুধু কাঁটার জ্বালা?আকাশে বাতাসে রাধে তো শুধু কৃষ্ণকেই দেখে।কালো মেঘে নিঠুর কালা উঁকি দিয়ে হাসে।রাধার চোখের এই আধারে কি যে তৃপ্তি তা ললিতা সখি কেমনে বুঝবে?এই আধারে যে কানুর পরশ দিবস রজনী চোখে লেগে রয় গো।

ভালো যদি বাসো গৌর,মোক্ষ তো তাতেই।যে বুকে প্রেমযমুনার ধারা বয়,তার আর জগতে কিসের আকাঙ্ক্ষা?মিলন কাকে বল তোমরা?আমি বলি,মনের মিতে তো বাস করে হৃদয়জুড়ে।দেহের কোষে কোষে তার পরশ পাই।আমার হৃদমাঝারেই তার বাস।বাইরে কেন খুঁজতে যাওয়া তাকে?অন্তরে খুঁজে দেখো গোসাই।খুঁজতে জানলে তোমার মাঝেই পাবে তাকে।প্রেমের সার্থকতা কি শুধু মিলনে?কে বলে?রাধারানীর মত করে কে কবে কৃষ্ণকে পেয়েছে বল তো?কৃষ্ণপ্রেম বুকে যে রাধার সব প্রাপ্তির তৃপ্তি। নিঠুর কালা যে সব পেয়েও সব হারায়।প্রেমের ঠাকুরের বুকের ভিতর প্রেমহীন খাঁ খাঁ মরু।ভালোবাসতে কি সবাই পারে?ভালোবেসে দেখো গোঁসাই,তোমার চেয়ে ধনী আর কে তখন এ দুনিয়ায়?

 

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত