জামাইষষ্ঠী জমে যাক চিংড়ির কাটলেটে

সামনেই জামাইষষ্ঠী। জামাই আসবেন শ্বশুরবাড়িতে। ফলের বাটা, মিষ্টি, হলুদে মাখা সুতো আর উপহার তো আছেই। সঙ্গে আছে ভরপেট খানাপিনা। এখনকার জামাইরা যদিও এতই ব্যস্ত যে, বাড়িতে বসে জমিয়ে খাওয়াদাওয়ার গপ্পো প্রায় ভুলতেই বসেছেন। তাই অনেক আধুনিক শাশুড়িই রেস্তোরাঁয় (Resturant) নিয়ে যান জামাইকে খাওয়াতে। আপনি যদি সনাতনী হন তাহলে বাড়িতে বসেই রেঁধে ফেলুন জনপ্রিয় রেস্তোরাঁ চ্যাপ্টার ২-এর (Chapter 2) চিংড়ির কাটলেট। ভুরিভোজ না হোক, ষষ্ঠীর দিনের জলখাবার জমে যাবে এই পদে।

কী কী লাগবে

মাঝারি আকারের চিংড়ি মাছ (ভালো করে খোসা ছাড়ানো), পাউরুটির গুঁড়ো ১ টেবিল চামচ, পাতিলেবুর রস ১ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, লঙ্কা-হলুদগুঁড়ো ১ চা-চামচ করে, ডিম ১টি ম্যারিনেড করার জন্য, নুন স্বাদ মতো, ভাজার জন্য তেল।

কীভাবে রাঁধবেন

খোসা ছাড়িয়ে মাছ ভালো করে ধুয়ে নিন। একটা পাত্রে ভালো করে ডিম ফেটিয়ে নিন। ডিমের গোলায় বাকি মশলা দিয়ে আরেকবার ভালো করে ফেটান। এবার গোলায় মাছ ডুবিয়ে পাউরুটির গুঁড়ো মাখিয়ে নিন। তেল ভালো করে গরম হলে ছাঁকা তেলে দু-পিঠ মুচমুচে করে ভাজুন। হালকা লালচে রঙ ধরলেই তুলে নিয়ে টিস্যু পেপারের ওপরে রাখুন। এতে বাড়তি তেল শুষে নেবে। এবার টম্যাটো সস, কাসুন্দি, স্যালাড দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন জামাই বাবাজীবনকে।

 

 

 

.

 

 

 

মন্তব্য করুন



আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

সর্বসত্ব সংরক্ষিত